‘দুলাভাই মেলা’য় শালিকাদের ভিড়ই বেশি

   
প্রকাশিত: ২:৪৭ অপরাহ্ণ, ২৭ জানুয়ারি ২০২০

গ্রামীণ ঐতিহ্য ধারণ করে ব্যতিক্রমী নানা আয়োজনে কুড়িগ্রাম শহরের খলিলগঞ্জ বাজার এলাকায় আয়োজন করা হয়েছে ৫ দিনব্যাপী ‘দুলাভাই মেলা’। জমে উঠেছে কুড়িগ্রামের দুলাভাই মেলা। সপ্তাহব্যাপী এ মেলার শেষ মুহূর্তে ক্রেতা-বিক্রেতা এবং দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখরিত। কুরিগ্রামের খলিলগঞ্জ বাজার সমিতি প্রায় একযুগ পর এ মেলার আয়োজন করে। বিলুপ্ত প্রায় ঐতিহ্যকে বর্তমান প্রজন্মের সামনে তুলে ধরার পাশাপাশি সামাজিক অসঙ্গতি দূর করে সম্প্রীতি বাড়ানোর জন্য এরইমধ্যে এই মেলার আয়োজন করা হতো। কিন্তু বিভিন্ন প্রতিকূলতার কারণে প্রায় একযুগ বন্ধ ছিল এ মেলা। তবে এবার আয়োজনে ব্যাপক সাড়া মেলায় খুশি আয়োজকেরা।

গেল ২২ জানুয়ারি সকালে বাজারসংলগ্ন এলাকায় মাছের মেলা ও বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা দেয়ার মাধ্যমে মেলার কার্যক্রম শুরু হয়। চলবে আগামীকাল ২৮ জানুয়ারি পর্যন্ত। মেলায় দেশীয় কুটির শিল্পের পণ্য, কবুতর ও পোষা প্রাণির প্রদর্শনী, বিনা খরচে পাত্র-পাত্রীর যৌতুকবিহীন বিয়ে, বৃক্ষমেলা, প্রবীণদের ক্লাব গঠন, মাদকবিরোধী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, পুতুল নাচ ও লাঠি খেলার মতো গ্রামীণ ঐতিহ্য তুলে ধরা হয় । এদিকে মাছের মেলায় এলাকায় পাওয়া যায় এমন ছোট-বড় মাছের সমাহার ঘটেছে। এসব মাছ কিনে দুলাভাইরা শশুরবাড়িতে নিয়ে যায়। ক্রেতা ছাড়াও উৎসুক মানুষের ভিড় জমে উঠেছে। পাশাপাশি খলিলগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় চত্বরে বিনামূল্যে দিনব্যাপী স্বাস্থ্য সেবা দেয়া হয়। আয়োজক কমিটি ও খলিলগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি জিয়াউল হুদা সিমেল বলেন, ‘প্রায় এক যুগ আগে এখানে প্রতি বছর দুলাভাই মেলার আয়োজন করা হতো। সেই মেলা আবার আয়োজন করা হয়েছে। ঐতিহ্যবাহী এ মেলায় এলাকার জামাই বা দুলাভাই সম্পর্কিতরা এসে বিভিন্ন দ্রব্যাদি এবং মাছ কিনে শশুরবাড়িতে যায়। এবার মেলায় সবার বেশ সাড়া মিলেছে। আগামীতেও এ মেলার আয়োজন করা হবে।’

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: