দ্রুত ওজন কমাবে যে দু’টি জুস

   
প্রকাশিত: ৩:৫৮ অপরাহ্ণ, ৮ জুলাই ২০২০

করোনার জন্য দেখা মিলেছে জীবনে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা কতটা জরুরী। তাই নিজেকে সুস্থ রাখতে হলে প্রয়োজন ফিট থাকা। আর ফিট থাকা মানেই আপনাকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে নিজের ওজন। আর স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া ও ব্যায়াম হলো ওজন কমানোর দুটি পদ্ধতি। ওজন কমানোর জন্য শর্টকার্ট কোনো উপায় না থাকায় এটি রাতারাতি অর্জন করা যায় না। তবে কিছু ছোট ছোট কৌশল রয়েছে যেগুলো এই প্রক্রিয়াকে আরও ত্বরান্বিত করে। পেটের মেদ কমাতে এবং একই সঙ্গে ওজন কমাতে দ্রুত কার্যকরী এমন দু’টি উপাদান হলো চালকুমড়ার জুস ও অ্যালোভেরার জুস। যা আপনি বানাতে পারবেন নিজ ঘরেই।

চালকুমড়া একটি পুষ্টিকর সবজি এতে বিভিন্ন ধরনর ভিটামিন, মিনারেল, শর্করা ও ফাইবার রয়েছে। এটি এন্টি মাইক্রোবিয়াল এজেন্ট হিসাবে পেট এবং অন্ত্রের ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করতে সাহায্য করে। মানসিক রোগীদের জন্য পথ্য হিসেবে কাজ করে, কারন এটি ব্রেইন এর নার্ভ ঠাণ্ডা রাখে। এই জন্য চালকুমড়াকে ব্রেইন ফুড বলা হয়। মুখের ত্বক এবং চুলের যত্নেও চালকুমড়ার রস অনেক সাহায্য করে। চালকুমড়ার রস নিয়মিত চুল ও ত্বকে মাখলে চুল চকচকে হয় এবং ত্বক সুন্দর হয়। ১০০ গ্রাম চালকুমড়ায় রয়েছে: ১৩ গ্রাম ক্যালোরি, প্রোটিন এক গ্রামেরও কম, কার্বস ৩ গ্রাম, ফাইবার তিন গ্রাম এবং ফ্যাট এক গ্রামেরও কম। এছাড়া এতে অল্প পরিমাণে আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, তামা এবং ম্যাঙ্গানিজ রয়েছে। চালকুমড়ার প্রায় ৯৬ শতাংশ পানি থাকে। এতে বেশিরভাগ পরিমাণ পানি এবং ফাইবার থাকার কারণে হজম শক্তি বৃদ্ধি করে। এটা কার্যকরভাবে ওজন কমাতে সাহায্য করে।

চালকুমড়ার জুস বানাবেন যেভাবে-

খোসা ছাড়িয়ে চালকুমড়া ছোট ছোট টুকরা করে কেটে নিন। সব বীজ ফেলে দিন। এরপর ব্লেন্ডারে দিয়ে একেবারে মসৃণ না হওয়া পর্যন্ত ব্লেন্ড করুন। এরপর একটি পরিষ্কার সুতি কাপড়ে ছেকে রস আলাদা করে নিন। স্বাদ বাড়ানোর জন্য এর মধ্যে লেবুর রস ও কয়েকটি পুদিনা পাতা যুক্ত করতে পারেন। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এই জুস পান করলে ওজন ও পেটের মেদ কমা ত্বরান্বিত হতে পারে।

অপরদিকে, স্বাস্থ্যরক্ষাতে অ্যালোভেরার জুড়ি নেই। তাই ডায়েটে নিয়মিত রাখতে পারেন অ্যালোভেরার জুস। অ্যালোভেরা অ্যান্টি-অক্সিডেন্টে ভরপুর। অ্যালোভেরাতে থাকা ল্যাক্সেটিভ উপাদান পেট পরিষ্কার করতে সাহায্য করে ও হজমশক্তি বাড়ায়।
এছাড়া টাইপ ২ ডায়াবেটিসে রোগীরা নিশ্চিন্তে এই রস খেতে পারেন। এতে ইনসুলিনের ক্ষরণ বাড়ে। নিয়ন্ত্রণে থাকে শর্করার পরিমাণ।

যেভাবে তৈরি করবেন অ্যালোভেরার জুড়ি।

উপকরণ- ঘৃতকুমারী বা অ্যালোভেরা ১টি, পানি ১ গ্লাস, মধু ১ চা-চামচ,বিট লবণ ও কাঁচা মরিচ।

প্রণালি- ঘৃতকুমারীর ( এর জেল বা শাস চামচ দিয়ে বের করে আনুন।) ভেতর থেকে শাঁস নিয়ে পানি, মধু,বিট লবন,কাঁচা মরিচ দিয়ে মিশিয়ে ব্লেন্ড করুন। কাঁচা মরিচের বদলে লেবু আর গোল মরিচ এর গুড়া দিতে পারেন।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: