নতুন তথ্য, চোখের জলে ছড়াতে পারে করোনা

   
প্রকাশিত: ৯:০০ অপরাহ্ণ, ১৮ জুন ২০২০

বস্টনের ম্যাসাচুসেটস আই অ্যান্ড ইয়ার-এর ডাক্তার বেঞ্জামিন ব্লেয়ারের মতে, চোখেতে ভাইরাস ঢুকতে পারে পরোক্ষভাবে। সেটা কী করে? ধরা যাক, রেসপিরেটারি ড্রপলেট জমে আছে এমন কোনও পদার্থ বা সারফেসে হাত লেগেছে এবার সেই হাত না ধুয়েই বার বার চোখে, মুখে ঘষলে, ভাইরাস সহজেই ঢুকে পড়বে শরীরে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই হাত না ধুয়ে চোখ ঘষা বা বারে বারে চোখে হাত দেওয়ার অভ্যাস অনেকেরই আছে। এভাবেই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে।

আমেরিকান অ্যাকাডেমি অব অপথ্যালমোলজি-র বিশেষজ্ঞরা বলছেন, চোখের জলের মাধ্যমেও ভাইরাস ছড়াতে পারে। চোখের জলও ড্রপলেট হিসেবে কাজ করতে পারে যাকে আধার বানিয়ে ভাইরাস এক শরীর থেকে অন্য শরীরে ছড়িয়ে পড়তে পারে। সেই কারণেই করোনা রোগীদের চিকিৎসা করছেন বা দেখাশোনা করছেন এমন ডাক্তার, নার্স বা স্বাস্থ্যকর্মীরা ফেস-শিল্ড বা ফেস-গিয়ার পরে নেন, যাতে মুখ, নাক আর চোখের সবটা একটা আবরণের আড়ালে থাকে। কোনওভাবেই রেসপিরেটারি ড্রপলেট সরাসরি মুখের সংস্পর্শে আসতে না পারে। ফেস-শিল্ড না থাকলে আই-গ্লাস হল বিকল্প উপায়। কোভিড টেস্টিং করেন যে স্বাস্থ্যকর্মীরা তাঁদের নাক, মুখ বা গলা থেকেই নমুনা সংগ্রহ করতে হয়। তার জন্য রোগীর কাছাকাছি যাওয়ার প্রয়োজন হয়। তাই সংক্রমণ এড়াতে সকলেই আই-গ্লাস পরে থাকেন।

এখন প্রশ্ন হল তাহলে ভাইরাস নাক বা মুখ দিয়ে কীভাবে ঢুকে পড়ছে শরীরে। শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের ২০ রকম কোষের বিশ্লেষণ করে বিজ্ঞানীদের ধারণা হয়েছে, নাকের কোষকেই প্রথম টার্গেট বানায় আরএনএ সার্স-কভ-২। শ্বাসনালীর দু’রকমের কোষ বিশেষ পছন্দ এই ভাইরাসের। কারণ এই দুই কোষেই থাকে সেই বিশেষ রিসেপটর প্রোটিন যার সাহায্যে তারা শরীরে ঢোকার রাস্তা খুঁজে পায়।

এআইআ/এইচি

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: