প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

নবজাতক চুরি করল ৪ নারী!

   
প্রকাশিত: ৯:৩৫ পূর্বাহ্ণ, ২৪ অক্টোবর ২০২০

রাজধানীর কদমতলী থানার জিনম হাসপাতাল থেকে চুরি যাওয়া নবজাতককে উদ্ধার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কদমতলী থানা। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ৪ নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মিডিয়া সেন্টার থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত ৪ নারী হলেন- কামরুন নাহার মুন্নি (৪০), রুনা (৩৫), রওশন আরা (৫০) এবং আফসানা বেগম (৪৫)।

এ বিষয়ে কদমতলী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জামাল উদ্দিন মীর জানান, ভুক্তভোগী রাবেয়া হাফছানা গত রোববার (১৮ অক্টোবর) গ্রেপ্তারকৃত কামরুন নাহার মুন্নির সহায়তায় কদমতলী থানার বিক্রমপুর প্লাজা সংলগ্ন জিনম হাসপাতালে ভর্তি হন। এদিন রাতে সিজারিয়ানের মাধ্যমে তিনি একটি বাচ্চা জন্ম দেন। জিনম হাসপাতালে তার জন্ম দেওয়া ছেলে শিশু গত ১৮ থেকে ১৯ অক্টোবর যেকোনো সময় চুরি যায়। এরপর নানা জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও নবজাতক বাচ্চার সন্ধান পাননি তিনি।

ওসি বলেন, গত বুধবার (২১ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮টায় থানায় এসে ভুক্তভোগী রাবেয়া তার বাচ্চা চুরি গেছে মর্মে অভিযোগ করেন। তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করে এস আই কবির হোসেন এবং এস আই রোমানার নেতৃত্বে একটি চৌকষ দল ঘটনাস্থলে পাঠাই। এসময় কামরুন নাহারকে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে জিনম হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে রুনাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মহাখালীতে অভিযান চালিয়ে আরেক অভিযুক্ত রওশন আরাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরবর্তীতে গ্রেপ্তারকৃতদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মূল অভিযুক্ত আফসানা বেগমকে বৃহস্পতিবার ভোররাতের দিকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং চুরি যাওয়া নবজাতককে উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিকভাবে গ্রেপ্তারকৃতরা ঘটনার সাথে সম্পৃক্ততা স্বীকার করেছে। আমরা শেষ পর্যন্ত নবজাতকটিকে তার মায়ের কোলে তুলে দিতে পেরেছি এটাই বড় শান্তনা। মাতৃক্রোড় নামক পৃথিবীর সবচেয়ে নিরাপদ আশ্রয়স্থলে নবজাতকটি ফিরতে পেরেছে। এ ঘটনায় কদমতলী থানায় মানব পাচার ও প্রতিরোধ আইনে একটি মামলা রুজু হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: