প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

এম. সুরুজ্জামান

শেরপুর প্রতিনিধি

নালিতাবাড়ীতে একাধিক পক্ষের দ্বন্দ্ব, বিদ্যালয়ের জমি প্রশাসনের নিয়ন্ত্রনে

   
প্রকাশিত: ৬:৪৮ অপরাহ্ণ, ১৩ জুলাই ২০২০

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় একাধিক পক্ষের দ্বন্দ্বের কারনে সংর্ঘষের আশংকায় একটি বেসরকারী বিদ্যালয়ের জমি প্রশাসন নিয়ন্ত্রণ নিয়েছেন। সোমবার (১৩ জুলাই) দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আরিফুর রহমান ঘটনাস্থল পরির্দশ করে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।

প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে, পৌর শহরের সাহা পাড়া এলাকায় তিন বছর যাবত পরিত্যাক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রসন্ন কুমার সাহা প্রিক্যাডেট স্কুলের জমি নিয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষ ও এলাকাবাসীর মধ্যে বেশ কিছু দিন ধরে দ্ব›দ্ব চলে আসছিল। বিষয়টি নিয়ে সামাজিকভাবে শালিস দরবার করেও সুরাহা হয়নি ফলে তা সংর্ঘষের পর্যায়ে চলে যাচ্ছিলো। তাই দুইক্ষের সংঘর্ষ এড়ানোর জন্য বিদ্যালয় ও দ্বদ্ব থাকা জমি আপতত প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আরিফুর রহমান জানান, নালিশী ২২ শতাংশ জমি দেবোত্তর সম্পত্তি ছিল। পরবর্তীতে অর্পিত সম্পত্তির তালিকায় নাম থাকায় বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে জেলা প্রশাসক ওই জমির মালিক। এখন এ জমিখন্ড কয়েক পক্ষ দাবি করছে। তাই গন্ডগোল ও সংঘর্ষ এড়াতে সোমবার জমিখন্ড প্রশাসনের নিয়ন্ত্রনে নেয়া হয়েছে। সকল পক্ষের কাছে কাগজপত্র চাওয়া হবে। পরে যাচাই বাছাই করে দেখা হবে। যদি কোন পক্ষের কাছে উপযুক্ত কাগজপত্র থাকে তাহলে তাকে বুঝিয়ে দেয়া হবে। আর যদি সবাই ব্যর্থ হয় তাহলে উলে­খিত জমি সরকারেই থাকবে।

জমিখন্ডকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ স্থানীয় সাংবাদিকদের নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন। অপরদিকে এলাকাবাসীর পক্ষে বিদ্যালয়ের পাশে একটি বাজার ও মন্দির স্থাপন করে। এছাড়া আরেকটি পক্ষ সেই জমিটিতে মসজিদ নির্মাণের জন্য প্রশাসনের কাছে আবেদন জানায়। এমতাবস্থায় প্রশাসন এই উদ্যোগ গ্রহন করে।

এসএ/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: