প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

এম. সুরুজ্জামান

শেরপুর প্রতিনিধি

নালিতাবাড়ী সীমান্তে বালু বোঝাই ট্রাকসহ দেবে গেছে ব্রীজ

   
প্রকাশিত: ১০:১০ অপরাহ্ণ, ২৮ মে ২০২০

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার সীমান্ত এলাকায় বৃহস্পতিবার (২৮ মে) বিকেলে প্রায় ৩০ টন বালু বোঝাই একটি ট্রাক সীমান্তের আন্দারুপাড়া শান্তির মোড় এলাকার খলচান্দা ব্রীজ দিয়ে আসার সময় দেবে যায় এবং ব্রীজের এপ্রোচ ভেঙ্গে বালুভর্তি ট্রাক ব্রীজে ট্রাকটি আটকে পড়ে যায়।

এর ফলে খলচান্দা গ্রামের প্রায় পাঁচ শতাধিক কোচ আদিবাসী সম্প্রদায়, পাশর্^বর্তী আন্ধারুপাড়া, বুরুঙ্গা, বারমারী এলাকায় লোকজনের যাতায়াত ও পরিবহন বন্ধ হয়ে যায়। স্থানীয় অধিবাসী আবুল হাসেম, বাছির মিয়া ও ফোরকান আলী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও বেশ কিছুদিন ধরে বালু খোকোর দল রাত দিন এ ব্রীজের উপর দিয়ে ভেজা বালুভর্তি ট্রাক পারাপার করায় ব্রীজটি দেবে গেছে। প্রায় ১৫ বছর আগে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ওয়ার্ল্ড ভিশন এটি নির্মাণ করে দেয়।

সীমান্ত সড়কের বুরুঙ্গা ব্রিজের উত্তরে ভারত থেকে বয়ে আসা পাহাড়ি নদী চেল্লাখালী নদীতে প্রতিবছর বালু উত্তোলনের জন্য বালু মহাল হিসেবে বেশকিছু এলাকা ইজারা দেয় শেরপুর জেলা প্রশাসন। ইজারা নিয়ে বালু ব্যবসায়ীরা বছরজুড়ে যত্রতত্র বালু উত্তোলন করতে থাকেন। যেখানে-সেখানে নদীর তল দেশ বোরিং করে খনিজ বালু উত্তোলন ও নদী তীরবর্তী এলাকা খুঁড়ে বালু উত্তোলনের মহোৎসব চলে। এর ফলে বর্তমানে প্রায় ১৬ কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত বুরুঙ্গা সীমান্ত সড়কের ব্রীজ এখন বেশ ঝুঁকিতে রয়েছে। কিছুদিন আগে ভেঙ্গে যায় ভোগাই সেতু। সীমান্ত সড়কে প্রায় চৌদ্দ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত বুরুঙ্গা সেতুটিও এখন দেবে যাওয়ার আশংকা করেছেন স্থানীয়রা।

স্থানীয়দের মতে, গত কয়েক বছরে বালু মহাল ইজারার নামে এ এলাকায় চলে আসছে পরিবেশের মারাত্মক ধ্বংসযজ্ঞ। প্রশাসন মাঝে মাঝে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করলেও তা থোরাই কেয়ার করেন বালু ব্যবসায়ীরা। নদীতে বর্তমানে পর্যাপ্ত বালু না থাকলেও সরকার ইজারা দিয়ে যাচ্ছে। এতে করে নদীর নাব্যতা নষ্ট ও প্রকৃতি ধ্বংস হচ্ছে। হুমকীর মুখে পড়েছে সরকারী স্থাপনা বুরুঙ্গা ব্রীজ। বালু পরিবহনের ফলে রাস্তা-ঘাট নষ্ট হয়ে যাওয়ায় ভোগান্তি বেড়েই চলেছে স্থানীয়দের।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আজাদ মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পাঁচ টন ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন খলচান্দা ব্রীজ দিয়ে ৩০ টন ওজনের ভেজা বালুভর্তি ট্রাক পরিবহন করছে বালুর ঠিকাদার। এর কারণে ব্রীজটি দেবে গেছে।

এ বিষয়ে নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আরিফুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানান, অতিরিক্ত লোডের কারনে ব্রীজটি দেবে গেছে। আমরা ওই ট্রাকটি আটক করেছি। ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাশাপাশি এলাকার লোকজনের চলাচলের জন্য সড়ক ও জনপদ বিভাগের সাথে কথা বলে খুব দ্রæত ব্যবস্থা হবে।

এসএ/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: