প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

নিউ ইয়র্কে স্কুল ও রেস্তোরাঁ বন্ধে মেয়র-গভর্নরের তুমুল দ্বন্দ্ব

   
প্রকাশিত: ৯:৪৮ পূর্বাহ্ণ, ৭ অক্টোবর ২০২০

নিউ ইয়র্কে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় আবারো স্কুল ও রেস্তোরাঁ বন্ধের বিষয় নিয়ে সিটি মেয়র ও রাজ্য সরকারের মধ্যে চলছে তুমুল দ্বন্দ্ব। সিটি মেয়র বিল ডি ব্লাজিও স্কুল, রেস্তোরাঁ ও জরুরি নয়—এমন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ৭ অক্টোবর থেকে বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা দিলে রাজ্য গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো তা অনুমোদন দেননি। ফলে তাদের মধ্যে শুরু হয়েছে তুমুল দ্বন্দ্ব। মার্কিন সংবাদমাধ্যম বাংলা প্রেস এখবর জানিয়েছে।

মার্কিন গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, মেয়র নিউ ইয়র্কের স্কুল, রেস্তোরাঁ ও জরুরি নয় এমন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান আবার বন্ধ করে দেওয়ার কথা বললেও প্রস্তাবটি গভর্নর নাকচ করে দিয়েছেন।

গত ৫ অক্টোবর গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো বলেছেন, নিউ ইয়র্কের স্কুল, রেস্তোরাঁ ও জরুরি নয় এমন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান এই মুহূর্তে আবার বন্ধ করার কোনো প্রয়োজন নেই।

মেয়র ব্লাজিওর এ সম্পর্কিত প্রস্তাব অনুমোদন না করে গভর্নর বলেছেন, স্কুল, রেস্তোরাঁ ও জরুরি নয় এমন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে এর পরিবর্তে রাজ্য পুলিশ সহায়তা করতে পারে। নিউ ইয়র্কে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বাইরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। কেউ এই আইন অমান্য করলে পুলিশ অতিরিক্ত জরিমানা করার পাশাপাশি তাঁদের বিরুদ্ধে সমন জারি করতে পারে। করোনাবিধি ভঙ্গ করলে রেস্তোরাঁকে জরিমানা করা যেতে পারে।

গভর্নর বলেন, স্থানীয় সরকারের আইন প্রয়োগের আইনি বাধ্যবাধকতা রয়েছে। যদি না করে, তাহলে স্থানীয় সরকার আইন লঙ্ঘন করবে। আর মৌখিকভাবে মাস্ক পরতে বলাটা-আইনের যথাযথ প্রয়োগ নয়। এটা যে কেউ লঙ্ঘন করবে।

নগরে আইনের যথাযথ প্রয়োগ না করাটা মেয়র ব্লাজিওর দোষ বলেও মন্তব্য করেন গভর্নর। ৪ অক্টোবর নগরের সিটি হলে মেয়র বিল ডি ব্লাজিও বলেন, নিউইয়র্কের ব্রুকলিন ও কুইন্সে আবার করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। করোনা প্রতিরোধে দীর্ঘ দিন এসব প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার পর আবার খোলা শুরু হয়েছে। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে ৭ অক্টোবর থেকে নগরের চিহ্নিত নয়টি এলাকার স্কুল, রেস্তোরাঁ ও জরুরি নয় এমন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান আবার বন্ধ করে দিতে হবে। বিষয়টি বর্তমানে রাজ্য সরকারের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে।

বিল ডি ব্লাজিও বলেন, স্কুল, রেস্তোরাঁ ও জরুরি নয় এমন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান আবার বন্ধ করে দিতে আপাতত নগরের নয়টি এলাকা চিহ্নিত করা হয়েছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে—ব্রুকলিনের বেনসনহার্স্ট, বরো পার্ক, গ্রেভসেন্ড, মিডউড ও শেপসহেড বে এবং কুইন্সের ফার রকঅ্যাওয়ে ও কিউ গার্ডেনস। এসব এলাকায় প্রায় পাঁচ লাখ মানুষের বসবাস।

তবে ব্লাজিওর এই প্রস্তাব নাকচ করে কুমো বলেছেন, এর পরিবর্তে নগরের ওই এলাকায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও মাস্ক পরার বিষয়ে সিটি কর্তৃপক্ষকে আরও কঠোর হতে হবে।

এআইআর/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: