প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

নিখোঁজ ২০ জনসহ ট্রলারটির খোঁজ মিলল মিয়ানমারে

   
প্রকাশিত: ৮:৪২ অপরাহ্ণ, ২৬ জানুয়ারি ২০২০

ইঞ্জিন বিকল হয়ে বঙ্গোপসাগরে মৎস্য আহরণ অবস্থায় নিখোঁজ এফবি বাকলিয়া ফিশিং-১ নামের সেই ট্রলারটির সন্ধান মিলেছে।। শনিবার (২৫ জানুয়ারি) বিকেলে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের সীতাপারোকিয়া প্যাচের অদূরে চরে আটকা পড়া অবস্থায় ট্রলারটি উদ্ধার করেছে মিয়ানমারের নৌবাহিনী। ওই ট্রলারে মাঝিমাল্লাসহ মোট ২০ জন ছিলেন।

বাংলাদেশ কনসুলেটের হেড অব মিশন বারিকুল ইসলামের বরাতে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড পূর্ব জোনের স্টাফ অফিসার (অপারেশন্স) লে. কমান্ডার সাইফুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গত ১৯ জানুয়ারি সেন্টমার্টিন দ্বীপের অদূরে গভীর সমুদ্রে ইঞ্জিন বিকল হওয়ার পর ২১ তারিখ থেকে নিখোঁজ হয়ে পড়ে ট্রলারটি। খবর পেয়ে মাঝিমাল্লাসহ নিখোঁজ ট্রলারটির সন্ধানে সাগরে তল্লাশি অভিযানে নামে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনী। সামুদ্রিক ফিশিং লাইসেন্সধারী ট্রলারটি গত ১৬ জানুয়ারি কর্ণফুলী নদীর ফিশারিঘাট থেকে মাছ ধরার উদ্দশ্যে সাগরে যায়। কমান্ডার সাইফুল ইসলাম আরও জানান, ইঞ্জিন বিকল হয়ে নিখোঁজ ট্রলারটির সন্ধানে কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনী সাগরে তল্লাশি চালায়। কিন্তু ট্রলারটি ভাসতে ভাসতে মিয়ানমার জলসীমায় চলে গিয়ে সীতাপারোকিয়া প্যাচের অদূরে চরে আটকা পড়ে।

কমান্ডার সাইফুল বলেন, মিয়ানমার-বাংলাদেশ বাণিজ্যে নিয়োজিত একটি জাহাজ সীতাপারোকিয়া প্যাচের অদূরে চরে আটকা পড়া অবস্থায় ট্রলারটি দেখে আমাদের খবর দিলে বিষয়টি বাংলাদেশ কনসুলেট অফিসকে অবহিত করি। কনসুলেট অফিস মিয়ানমার নৌবাহিনীকে বিষয়টি জানালে নৌবাহিনী মাঝিমাল্লাসহ ট্রলারটি উদ্ধার করে। রবিবার (২৬ জানুয়ারি) সকালে বাংলাদেশ-মিয়ানমার আন্তর্জাতিক সমুদ্র সীমানার জিরো লাইনে মাঝিমাল্লাসহ ট্রলারটি বাংলাদেশ কোস্টগার্ডের হাতে হস্তান্তর করেছে মিয়ানমারের নৌবাহিনী।

এফএএস/এসএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: