এবিপি আনন্দকে সাক্ষাত্কারে মমতা ব্যানার্জি

নির্বাচনে জালিয়াতিতে বাংলাদেশিদের ব্যবহার করেছে বিজেপি

     
প্রকাশিত: ৮:৪৬ পূর্বাহ্ণ, ১৮ জুন ২০১৯

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি অভিযোগ করেছেন, লোকসভা নির্বাচনে জিততে জালিয়াতি করেছে বিজেপি। এক্ষেত্রে বাংলাদেশিদের ব্যবহার করা হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন। এবিপি আনন্দকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে মমতা ব্যানার্জি এমন অভিযোগ করেন।

সাক্ষাত্কারে এক প্রশ্নের জবাবে মমতা বলেন, রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (আরএসএস) এক হাজার লোক এখনো বিভিন্ন প্রান্তে অবস্থান করছেন। খোঁজ নিয়ে দেখেন তারা কত স্কুল চালায়। টাকা আসছে কোথা থেকে। এরপরই আবার এই অর্থ বিদেশ থেকে আসছে বলে দাবি করেন মমতা।

বাংলাদেশ সীমান্ত থেকে নির্বাচনের সময় কারা বৈঠক করতে এসেছিলেন এমন প্রশ্ন তোলার পর মমতা ব্যানার্জিই আবার বলেন, বাংলাদেশ সীমান্ত থেকে অন্য ধর্মের লোক এসেছে। তবে তারা কোন ধর্মের সেটা আমি বলবো না।

মমতার অভিযোগ, বিজেপি ইভিএমে আগে থেকেই প্রোগ্রামিং করে রেখেছিল। দেশজুড়ে ৩০০টি এবং পশ্চিমবঙ্গে ২৩টি আসনে প্রোগ্রামিং করে রেখেছিল কেন্দ্রে ক্ষমতাসী দলটি। এর মধ্যেও তার দল তৃণমূল কংগ্রেস বেশি আসনে জিতেছে বলে উল্লেখ করেন মমতা ব্যানার্জি। আর বিজেপি দুর্ভাগ্যক্রমে ১৮টি আসনে জয় পায়। যদিও বিজেপি নির্বাচনের আগে ২৩ টি আসনে জয় পাবে বলে দাবি করেছিল।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও বলেছিলেন, ৩০০টির বেশি আসনে বিজেপি জয় পাবে। কিভাবে এই সংখ্যা মিলে গেল এমন প্রশ্ন রেখে তৃণমূল নেত্রী অভিযোগ করেন, বিভিন্ন স্থানে বাঙালিদের নামে মিথ্যা প্রচারণা চালিয়েছিল বিজেপি। বিভিন্ন গোষ্ঠীর মধ্যে বিরোধ তৈরি করার চেষ্টা করেছিল।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আসামে বিজেপি প্রচারণা চালিয়েছিল-বাঙালিরা জিতলে রাজবংশীদের জমি কেড়ে নেবে, কুচবিহারে বাঙালি, বাংলাদেশি ও রাজবংশীদের মধ্যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি এবং বিভিন্ন জেলায় বাঙালিদের সঙ্গে হিন্দি ভাষাভাষীদের বিরোধ তৈরি করেছিল বিজেপি। সূত্র: ইত্তেফাক।

এআইআর/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: