প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

‘নির্বাচিত সরকার না থাকায় দেশে স্বেচ্ছাচারিতা-দুর্বৃত্তায়ন চলছে’

   
প্রকাশিত: ১২:১৮ পূর্বাহ্ণ, ২৮ অক্টোবর ২০২০

ছবি: ইন্টারনেট

প্রকৃত নির্বাচিত সরকার না থাকায় দেশে স্বেচ্ছাচারিতা ও দুর্বৃত্তায়ন চলছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, ক্ষমতাসীনরা স্বেচ্ছাচারি হয়ে পড়েছেন। মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য হাজী সেলিম পুত্র এরফান সেলিম কর্তৃক নৌ বাহিনীর এক কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনার প্রসঙ্গ তিনি এ সব কথা বলেন।

নজরুল ইসলাম বলেন, ‘সাম্প্রতিক কিছু ঘটনায় এটা প্রমাণিত হচ্ছে যে সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয় না, যে সরকারের ক্ষমতার নৈতিক ভিত্তি নেই, সেই সরকারের আমলা তার মন্ত্রীরা দুর্নীতিগ্রস্থ হয়, তার দলের নেতারা দুর্নীতিগ্রস্থ হয় এবং সবাই স্বেচ্ছাচারি হয়ে যায়। এর প্রমাণ আমরা দেখলাম কক্সবাজারে মেজর সিনহার ঘটনা এবং আমরা অতি সম্প্রতি দেখলাম সাংসদ হাজী সেলিমের পুত্রকর্তৃক নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনা।’

তিনি বলেন, ‘এই যে স্বেচ্ছাচারি মনোভাব, এই মনোভাব দূর হওয়া কিংবা সম্রাট-পাপিয়া, ফরিদপুরের নেতারা এবং আরও অনেক নেতা তাদের যেসব দুর্নীতি-অনাচার সেটা থেকে বের হওয়ার একটাই পথ। আর তা হলো জনগণের কাছে দায়বদ্ধতা এবং জনগণের কাছে জবাবদিহিমূলক একটা সরকার প্রতিষ্ঠা করা। আর সেটা শুধু অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে সম্ভব। তার জন্য প্রয়োজন ক্ষমতায় একটা নিরপেক্ষ সরকার থাকা এবং আর একটা যোগ্য নির্বাচন কমিশন থাকা।’

তিনি আরও বলেন, ‘সেজন্য জনগণের দাবি যে, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে এবং একটা যোগ্য নির্বাচন কমিশনের অধীনে একটা অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করা হোক। সেই নির্বাচনে জনগণ তার পছন্দমত ভোট দিয়ে যাকে নির্বাচিত করবে তারা রাষ্ট্র ক্ষমতা পরিচালনার দায়িত্ব নেবে এবং তাদেরকে যেহেতু জনগণের কাছে দায়বদ্ধ থাকতে হবে। যেহেতু তাদেরকে জনগণের কাছে জবাবদিহি করতে হবে সেহেতু সেই সরকারের কোনো মন্ত্রী কিংবা সেই দলের কোনো নেতা দুর্নীতিবাজ কিংবা স্বেচ্ছাচারি হতে পারবে না।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সরকারের ভিত্তি যেখানে অনৈতিকতার ওপর প্রতিষ্ঠিত। যেখানে সরকারের মন্ত্রী বলেন, কর্মকর্তা বলেন আর তার দলের নেতা-কর্মী বলেন- কারোই নৈতিক মূল্যবোধ কাজ করে না। সবাই স্বেচ্ছাচারি হয়, সবাই দুর্নীতিবাজ হয়ে যায়।’

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: