প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

মাসুদ রেজা শিশির

রাজবাড়ী প্রতিনিধি

পাংশায় যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে মারধর

   
প্রকাশিত: ৯:২৮ অপরাহ্ণ, ৮ আগস্ট ২০২০

ছবি: প্রতিনিধি

রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার পাট্টা ইউনিয়নের পূর্বপাট্টা গ্রামের শাহিন মন্ডল ও তার পরিবার দির্ঘদিন ধরে যৌতুকের দাবীতে শাহিন মন্ডলের স্ত্রীকে অমানষিক নির্যাতন করে আসছিল। সর্বশেষ শুক্রবার (৭ আগস্ট) রাতে স্ত্রী মায়া বেগমকে মারধর করে ঘরের মধ্যে তালা দিয়ে আটক করে রাখে পরে মায়া বেগমের পিতা বিষয়টি জানতে পেরে পাংশা মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ প্রদান করলে পুলিশ তাৎক্ষণিক ওই বাড়ীতে গিয়ে তালাবন্ধ অবস্থায় গৃহ থেকে মায়া বেগমকে উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে।

মায়া এখন পাংশা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। মায়া’র পিতা কালুখালী উপজেলার শাওরাইল ইউনিয়নের বাস্তেপুরের বাসিন্দা ওলিয়ার রহমান শনিবার সকালে সাংবাদিকদের বলেন প্রায় ৩ বছর আগে আমার মেয়েকে বিয়ে দিয়েছি বিয়ে দেওয়ার সময় নগদ ১লক্ষ টাকা ও বিভিন্ন আসবাপত্র দিয়েছিলাম বিয়ের পর থেকে বিভিন্ন অযুহাতে আমার নিকট থেকে আরো প্রায় ২ লক্ষাধীক টাকা নিয়েছেন আমার জামাই শাহিন মন্ডল ও তার পরিবার।

মায়া বেগমের মামা বলেন, সম্প্রতি আরো ২লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে আমার ভাগ্নিকে নির্যাতন করে চলছে সম্প্রতি সময়ে আমরা জানতে পেরেছি ওই জামাই নেশা গ্রস্থ হয়ে পড়েছে বিভিন্ন সময় আমাদের মেয়ের উপর নির্যাতন করে আসছে তারা। এ ঘটনায় মায়া’র পিতা ওলিয়ার রহমান বাদী হয়ে পাংশা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

পাংশা মডেল থানার এস আই মো. মাহবুব হোসেন বলেন অভিযোগ পাওয়ার পরই অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেনের নির্দেশে রাতেই ওই গৃহবধুকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এদিকে ঘটনার পর থেকেই শাহিন মন্ডল পলাতক রয়েছে বলে জানাগেছে।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: