পৃথিবীতে এক লাখ বছর আগে বিলুপ্ত হওয়া পাখির আবার ফিরে আসা!

   
প্রকাশিত: ৯:১৯ অপরাহ্ণ, ২৬ মে ২০২০

পাখি আমাদের পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করে। তাছাড়া পাখিদের কলকাকলিতে পরিবেশ মুখরিত হয়। পৃথিবীতে চেনা বা না চেনা অনেক পাখি রয়েছে। এদের মধ্যে নাম জানা রয়েছে অনেক পাখি, আবার কিছু রয়েছে নাম না জানা। তবে দিন দিন আমাদের অনেক পরিচিত পাখি বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে।তেমনি একটি পাখি এলডেবরা হোয়াইট থ্রোটেড রেল। জেনে অবাক হবেন, প্রায় এক লাখ বছর আগে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া এলডেবরা হোয়াইট থ্রোটেড রেল পাখি আবার প্রকৃতিতে ফিরে এসেছে। এই পাখির প্রজাতি বিলুপ্ত হয়ে যাওয়ার কারণ মনে করা হয় সমুদ্রসীমার উচ্চতা বৃদ্ধিকে।

বর্তমানে আবার এই উড়তে অক্ষম পাখিটির উপস্থিতি বিজ্ঞানীদের ভাবনায় ফেলে দিয়েছে। কেন এবং কিভাবে এই পাখিটি এত বছর পরে ফিরে এলো? জুলজিক্যাল জার্নাল অফ লিনিয়ান সোসাইটির গবেষণা মতে, এলডেবরা পাখির এই ফিরে আসা “পুনরাবৃত্তি বিবর্তন” এর ফলাফল। এই বিবর্তনের ফলে পুরোনো যে জিনগুলো মারা গেছে বলে মনে করা হত, সেই মৃত জিনগুলোর নতুন এক সময়ে এসে পুনর্জন্ম হয়। কোন পাখির পূর্বপুরুষ বিলুপ্ত হয়ে গেলেও, সেই বিলুপ্ত পূর্বপুরুষের ডিএনএ কিন্তু পরবর্তী প্রজাতিতে রয়ে যায়। উপযুক্ত পরিবেশ পেলে সেই পুরোনো ডিএনএ আবার নতুনভাবে ফিরে আসতে পারে। কাজেই প্রায় একই রকম প্রজাতি থেকে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে একাধিক এবং কিছুটা বিবর্তিত নতুন উত্তরসূরির আবির্ভাব ঘটা সম্ভব।

তবে তার মানে এই নয় যে, এই বিবর্তনের ফলে ডাইনোসর এবং লোমশ ম্যামথ যে কোনো সময় ফিরে আসবে। এই বৈজ্ঞানিক ঘটনা শুধুমাত্র সেসব প্রজাতির ক্ষেত্রেই ঘটে যারা প্রায় তাদের পূর্বপুরুষের মতই দেখতে। পুনরাবৃত্তি বিবর্তন এর আগে অন্যান্য প্রজাতি যেমন-কাছিমের ক্ষেত্রে লক্ষ্য করা গেলেও পাখিদের ক্ষেত্রে এই প্রথম। শুধুমাত্র এলডেবরা পাখিরই ভারত মহাসাগর অঞ্চলের মহাসাগরীয় দ্বীপের সবচেয়ে পুরোনো জীবাশ্ম রেকর্ড রয়েছে, যা থেকে এই পাখির বিলুপ্ত হওয়ার এবং পুনরায় ফিরে আসার পেছনে সমুদ্র সীমার উচ্চতা পরিবর্তনের প্রভাবের প্রমাণ পাওয়া যায়।

এসএ/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: