প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

হারুন-অর-রশীদ

ফরিদপুর প্রতিনিধি

ফরিদপুরে করোনায় মৃত ১৫ জনের লাশ দাফন করল তাকওয়া ফাউন্ডেশন

   
প্রকাশিত: ১২:৩৫ অপরাহ্ণ, ৬ জুলাই ২০২০

করোনাকালে সবচেয়ে আলোচিত ও প্রশংসিত সংগঠনের নাম ‘তাকওয়া ফাউন্ডেশন’। এই ফাউন্ডেশন বর্তমান প্রেক্ষাপটে করোনা রোগী এবং তাঁদের পরিবারের জন্য সেবামূলক বিশেষ ভূমিকা পালন করছে।

ইতোমধ্যে দেশব্যাপী প্রশংসার জোয়ারে ভাসছে সংগঠনটি। দেশের প্রায় প্রতিটি জেলায় জেলাভিত্তিক টিম গঠন করে লাশ দাফনকাজে বিশেষ ভূমিকা পালন করছে ‘তাকওয়া ফাউন্ডেশন’। ফরিদপুর জেলা তাকওয়া ফাউন্ডেশনের টিম প্রধান ফরিদপুরের নগরকান্দার কৃতি সন্তান মুফতি মুস্তাফিজুর রহমানের স্বেচ্ছাসেবকরা প্রশংসিত হচ্ছেন এলাকাবাসির কাছে।

নগরকান্দা থানার মাঝিকান্দা গ্রামের মোঃ হোসেন সরদার (৪৮) (৫ জুলাই ) রবিবার বিকাল ৩ টায় জ্বরে ভূগে ইন্তেকাল করেছেন। মরহুমের গোসল কাফন ইত্যাদি খেদমতে তাকওয়া ফাউন্ডেশন ফরিদপুর জেলা টিম প্রধান মুফতি মুস্তাফিজুর রহমানকে স্থানীয় শওকত শরীফ নামে এক ব্যক্তি আহবান জানালে তিনি তাকওয়া ফাউন্ডেশন ফরিদপুরের নিবেদিত আলেম স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়ে নগরকান্দা উপজেলার মাঝিকান্দা গ্রামে মৃত্যু বাড়িতে উপস্থিত হন।

তাকওয়া ফাউন্ডেশনের নিবেদিত আলেম স্বেচ্ছাসেবীগণ দীর্ঘ শ্রম দিয়ে সার্বিক কার্যক্রম সম্পন্ন করেন। এ খেদমতে অংশগ্রহণ করেন তাকওয়া ফাউন্ডেশন ফরিদপুর টিমের প্রধান নগরকান্দা উপজেলার মুফতি মুস্তাফিজুর রহমান, পৌরসভার জিম্মাদার হযরত হা: মাওঃ মুফতি শিহাব উদ্দিন, নিবেদিত স্বেচ্ছাসেবী কারী সাইফুল ইসলাম, মাওঃ মীর শাওন আলী, মাওঃ আরিফ বিল্লাহ প্রমুখ।

সার্বিক তদারকি ও খোঁজ খবর নেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক মো. খোকন। সকলেই তাকওয়া ফাউন্ডেশন এর সেচ্ছাশ্রমের প্রশংসা করে এ আলেম স্বেচ্ছাসেবীদের কৃতজ্ঞতা জানান। নিবেদিত এ আলেম স্বেচ্ছাসেবীরা সকল বিপদ ও দূর্যোগে পাঁশে থাকার আশ্বাস দেন এবং সকলকে তাকওয়া ফাউন্ডেশন এর জন্যে দোয়ার আবেদন জানিয়ে তাকওয়া ফাউন্ডেশন ফরিদপুর জেলা শাখার আহ্বায়ক মুফতি মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমরা এ পর্যন্ত সর্বমোট ১৫ টি মৃত লাশের দাফন কার্য সম্পাদন করলাম৷ মানবতার কল্যাণে স্বেচ্ছাশ্রম দিয়ে যাচ্ছি যতদিন পর্যন্ত এ সংকট থেকে মহান আল্লাহ আমার দেশবাসীকে মুক্তি না দেন ততদিন আমরা ইসলাম, দেশ ও মানবতার কল্যাণে নিবেদিত থাকবো ইনশাআল্লাহ। তিনি বলেন, ফরিদপুর জেলায় আমাদের সেবা পেতে যোগাযোগ করতে পারেন ০১৭৬২৮২৯০৪৩ নম্বরে৷

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: