বশেমুরবিপ্রবিতে কম্পিউটার চুরি, যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান ছাত্র ইউনিয়নের

   
প্রকাশিত: ৬:১১ অপরাহ্ণ, ১২ আগস্ট ২০২০

তানবির আলম খান, বশেমুরবিপ্রবি থেকে: গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) গ্রন্থাগার থেকে ৪৯ টি কম্পিউটার চুরি হয়েছে। এই ঘটনায় যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বশেমুরবিপ্রবি ছাত্র ইউনিয়ন। মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) প্রকাশিত ছাত্র ইউনিয়নের একটি প্রেসবিজ্ঞপ্তি গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে পাঠানো হয়।

প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে চুরির ঘটনায় সংগঠনটির বিশ্ববিদ্যালয় শাখা সভাপতি রথীন্দ্রনাথ বাপ্পি ও সাধারণ সম্পাদক নাজমুল মিলন এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, এর দায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন- লাইব্রেরীয়ান ও নিরপাত্তার দায়িত্বে থাকা কর্তাব্যক্তিদের উপরই বর্তায়।

কম্পিউটার চুরির ঘটনায় গঠিত ৭ (সাত) সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটির উপর আস্থা রেখে সংগঠনটির নেতারা বলেন, আশা করি তদন্ত কমিটি দ্রুততম সময়ে উক্ত ঘটনার সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে চুরির ঘটনায় জড়িত ব্যক্তি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্পদ রক্ষায় ব্যর্থ ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। ব্যবস্থা গ্রহণে বিশ্ববিদ্যালয় ব্যর্থ হলে ছাত্রইউনিয়ন সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে বাধ্য করবে বলে যৌথবিবৃতিতে সতর্ক করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, করোনা পরিস্থিতি ও ঈদের ছুটি শেষে গত রবিবার (৯ আগস্ট) সীমিত পরিসরে সকল দাপ্তরিক কার্যক্রম শুরু হয়। ঐদিন সকালে লাইব্রেরি সংশ্লিষ্টরা লাইব্রেরিতে ঢুকেন। এসময় পিছনের জানালা ভাঙ্গা দেখতে পান। সেখান দিয়ে ৪৯ টি কম্পিউটার চুরি হয়েছে। তারা রেজিস্টার দপ্তরে অবহিত করেন, যদিও প্রথমে জানানো হয়েছিলো ৯১ টির কথা। জানা যায়, দায়িত্বপ্রাপ্ত ৩০ জন নিরাপত্তারক্ষীদের ৩০ জনের ২০ জনই ২৩ থেকে ২৭ জুলাইয়ে কারণ না জানিয়ে ছুটি ছাড়াই অনুপস্থিত ছিলো। ঘটনাটি সেসময়ই ঘটেছে বলে কর্তৃপক্ষের ধারণা। এর আগেও ২০১৬, ১৭ ও ১৮ সালে ৩ দফায় শতাধিক কম্পিউটার চুরির ঘটনা ঘটছে। বারবার চুরির ঘটনায় বিচার না হওয়াই এই ঘটনাকে উস্কে দিয়েছে বলে অনেকে মনে করেন।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: