বাংলাদেশের রেমডিসিভির পাকিস্তানে করোনা রোগ সারাবে

   
প্রকাশিত: ৯:১৫ অপরাহ্ণ, ২ জুন ২০২০

পাকিস্তানে কভিড-১৯-এ আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিতে বাংলাদেশে তৈরি বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের প্রস্তুতকৃত রেমডিসিভির (ব্র্যান্ড নাম বেমসিভির) নিয়েছে পাকিস্তান। বেক্সিমকোর এক মুখপাত্র জানান, ঢাকাস্থ পাকিস্তান দূতাবাসের অনুরোধে এগুলো পাঠানো হয়েছে। দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত তিনজন গুরুতর অসুস্থকে জরুরি চিকিৎসা দিতে ৪৮টি ইঞ্জেকশন নিয়েছে তারা। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক এএইচএম তৌহিদ-উল আহসান জানান, গত রবিবার রাত ১০টার দিকে বেক্সিমকোর ওষুধ নিয়ে বিশেষ কার্গো বিমানটি যাত্রা করে। পাকিস্তানে ৭২ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত। মৃত্যু ঘটেছে দেড় হাজারের বেশি। সুস্থ হয়েছেন ২৬ হাজারের বেশি।

এর আগে নভেল করোনা ভাইরাসের তীব্র প্রকোপের মুখে বাংলাদেশ থেকে রেমডেসিভির কেনার কথা জানায় পাকিস্তান। সে দেশের তৃতীয় বৃহত্তম ওষুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সিয়ারলে কম্পানি লিমিটেড রেমডেসিভির আমদানির জন্য বাংলাদেশের অন্যতম শীর্ষ ওষুধ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের সঙ্গে একটি চুক্তি সই করে। এই চুক্তির সুবাদে সিয়ারলে এককভাবে পাকিস্তানে বেক্সিমকোর উৎপাদিত রেমডেসিভির, যার ব্র্যান্ড নাম বেমসিভির, আমদানি ও বাজারজাত করতে পারবে।

মূলত রেমডেসিভির যুক্তরাষ্ট্রের গিলিয়েড সায়েন্সেসের উদ্ভাবিত একটি ওষুধ। ইবোলা ভাইরাসের চিকিৎসায় এর উদ্ভাবন ঘটে। যদিও ইবোলার চিকিৎসায় তেমন সাফল্য দেখেনি ওষুধটি। করোনায় আক্রান্তদের ওপর রেমডিসিভির প্রয়োগ করে মৃত্যুহার কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। আবার রোগমুক্তিতেও কম সময় লেগেছে।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: