প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

বাবা-ছেলে ও নাবালক ভাইপো মিলে কিশোরীকে ১৬ মাস ধরে…

   
প্রকাশিত: ৫:৫৪ অপরাহ্ণ, ২২ জুলাই ২০১৯

ছবি: প্রতীকী

এক বছরেরও বেশি সময় ধরে এক কিশোরীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে বাবা-ছেলেসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে। প্রায় ১৬ মাস ধরে নির্যাতিত ওই কিশোরী অবশেষে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশের ভূপালে।

এ ঘটনার পর অভিযুক্ত সবাইকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাদের মধ্যে একজন নাবালক।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এই সময়ের খবরে বলা হয়েছে, ২০১৮ সালের মার্চ মাসে মাত্র ১৫ বছর বয়সে ওই কিশোরীর মা মারা যাওয়ার পর তার পড়াশোনা বন্ধ হয়ে যায়। তখন সে নবম শ্রেণিতে পড়ত। বাবা একটি বাড়ির ওয়াচম্যানের কাজ করতেন। সে সময় ওই কিশোরীকে টাকার বিনিময়ে বাড়ির বাচ্চাদের দেখাশোনা করার জন্য ডেকে নিয়ে যেতেন এক ক্যাটারিং কন্ট্রাক্টর (৫০)। কিছুদিন পর থেকেই তিনি মেয়েটিকে পর্ন ভিডিও দেখাতে শুরু করেন এবং একপর্যায়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করেন। এভাবে চলতে থাকে বেশ কিছুদিন। সবাইকে এ বিষয়ে বলে দেওয়ার হুমকি দিয়ে মেয়েটিকে যৌন নিগ্রহ শুরু করে অভিযুক্তের ছেলেও (২৩)।

কয়েক সপ্তাহ পর অভিযুক্তের ভাইপোর কাছ থেকে একটি ফোন নিয়ে মেয়েটি তার স্কুলের এক বন্ধুর সাহায্য চায়। কিন্তু সাহায্য তো দূরের কথা সেও মেয়েটির বাবাকে বলে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে। এই সুযোগ নেয় ছেলেটির বন্ধুও। প্রতিবেশী আরও দুজন বিষয়টি জানতে পারলে তারাও সুযোগ নেয়।

অবশেষে মানসিক ও শারীরিকভাবে বিপর্যস্ত মেয়েটি তার বাবাকে সব কথা খুলে বললে তিনি পুলিশকে জানান।

টুকোগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তহজিব কাজি জানান, অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে রয়েছেন ক্যাটারিং কন্ট্রাক্টরও। এছাড়া এ ঘটনায় ক্যাটারিং কন্ট্রাক্টরের ছেলে ও ভাইপোকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এএস/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: