ফ্রিতে ব্রেকিং নিউজ এ্যালার্ট

বিদ্যুতের বিল কমার উপায়

                       
প্রকাশিত: ১২:১৪ পূর্বাহ্ণ, ১২ জুলাই, ২০২০

করোনাকালে অনেকেরই বিদ্যৎ বিল নিয়ে বিভ্রাট পোহাতে হয়েছে। বিদ্যুৎ বিল দেখে অনেকেই হয়তো ভেবেছেন, কিভাবে হয় এত টাকা? মাস শেষে বিদ্যুতের বিল এরকম এলে কার মাথা ঠিক থাকে। এসি না থাকলে বা ব্যবহার না করলেও কোথা থেকে এত ইউনিট পুড়ে যাচ্ছে! কিছু নিয়ম মেনে চললে এই বিলের খরচ যেমন কমবে, তেমনই রক্ষা পাবে প্রাকৃতিক সম্পদ। শুধুমাত্র আলো ও পাখার ব্যবহার কমানো বড় কথা নয়, খরচ বাঁচানোর জন্য গ্রহণ করতে হবে কিছু কৌশল। এবার সেগুলো জেনে নেওয়া যাক-

* চার্জার থেকে মোবাইল খোলার পর অবশ্যই সুইচ বন্ধ করুন। এই ভুল প্রায়শই আমরা করে থাকি। এসির ক্ষেত্রেও রিমোট দিয়ে বন্ধ করার পর সুইচ বন্ধ করি না অনেক সময়। এতেও কিছুটা অতিরিক্ত ইউনিট পোড়ে।

* আলোর ক্ষেত্রে ব্যবহার করুন এলইডি। এসব আলোয় ফিলামেন্টের তুলনায় সার্কিট ব্যবহার হওয়ায় বিদ্যুতের খরচ কমে।

* যে কোন বৈদ্যুতিক যন্ত্র কেনার সময় স্টার রেটিং দেখে কিনুন। কোন যন্ত্রের স্টার রেটিং বেশি হলে তার ইউনিট বাঁচানোর ক্ষমতাও ততোধিক।

* পুরনো তার এবং পুরনো যন্ত্র বেশি পরিমাণে বিদ্যুৎ খরচ করে। এর ফলে বিদ্যুৎ বিলের অঙ্ক বেড়ে যায়। তাই দশ-পনেরো বছরের পুরনো যন্ত্র বা তার পাল্টিয়ে আধুনিক ও কম ইউনিট খরচের যন্ত্র ও তার কিনুন।

* ঘন ঘন এসি চালু ও বন্ধ না করে একটানা চালিয়ে কিছুক্ষণ পর বন্ধ করে দিন। এতে বিদ্যুৎ খরচ কম হবে।

* এসির তাপমাত্রা ২৪ ডিগ্রির নীচে নামাবেন না। তাতে বেশি ইউনিট খরচ হয়। ইনভার্টার এসি কিনতে পারলে সবচেয়ে ভাল, একান্তই তা না পারলে এনার্জি সেভিং মোড অন করে রাখুন।

* ফ্রিজের বেলায় মানতে হবে কিছু নিয়ম। দিনে এক ঘণ্টা করে বন্ধ রাখুন ফ্রিজ। যন্ত্রও বিশ্রাম পাবে, বিদ্যুৎও বাঁচবে। ফ্রিজের ভেতর ঠান্ডা থাকায় এই এক ঘণ্টায় খাবার-দাবার নষ্ট হওয়ার ভয় নেই।

* ফ্রিজে খুব গরম খাবার রাখবেন না। একটু ঠান্ডা করে তারপর রাখুন ফ্রিজে। এতে বিদ্যুৎ খরচ কম হবে। খাবার ফ্রিজে রাখার সময় অবশ্যই ঢেকে রাখবেন। নইলে খাবারের উপরের আর্দ্রতা টেনে নেওয়ায় বিদ্যুৎ খরচ বেশি হবে।

* নিয়ম করে সব যন্ত্রেরই সার্ভিসিং করান সময় মতো। এতে যন্ত্র ভাল থাকবে ও বিদ্যুৎ কম টানবে।

* সোলার লাইটের চাহিদা ক্রমেই বাড়ছে নানা জায়গায়। সারাজীবনের বিদ্যুৎ বাঁচাতে এককালীন কিছু খরচ করে এই সোলার ব্যবস্থা করে নিতে পারেন।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


পাঠকের মন্তব্য:

নিবন্ধন নং- ০০০৩

© স্বত্ব বিডি২৪লাইভ মিডিয়া (প্রাঃ) লিঃ
এডিটর ইন চিফ: আমিরুল ইসলাম আসাদ
বাড়ি#৩৫/১০, রোড#১১, শেখেরটেক, ঢাকা ১২০৭

ফোন: ০৯৬৭৮৬৭৭১৯০, ০৯৬৭৮৬৭৭১৯১
ইমেইল: info@bd24live.com