‘ক্ষুধা না চুলা জ্বলুক’

বৃদ্ধাশ্রমের বাসিন্দাদের সহযোগিতা করবে আরএফএল গ্যাস স্টোভ

   
প্রকাশিত: ৫:০৭ অপরাহ্ণ, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বৃদ্ধাশ্রমের বাসিন্দাদের সহযোগিতার জন্য ‘ক্ষুধা না চুলা জ্বলুক’ নামে একটি ক্যাম্পেইন চালু করেছে দেশের জনপ্রিয় গ্যাসের চুলার ব্র‍্যান্ড আরএফএল গ্যাস স্টোভ। এর মাধ্যমে আরএফএল গ্যাস স্টোভের বিক্রিত প্রতিটি গ্যাস স্টোভ থেকে ১০ টাকা ব্যয় করা হবে বৃদ্ধাশ্রমের মানুষদের কল্যাণে।

বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর বাড্ডায় প্রিমিয়ার প্লাজায় আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই ক্যাম্পেইনের ঘোষণা দেন রংপুর মেটাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- আরএফএল গ্যাস স্টোভের প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা তাকবীর রহমান, জেনারেল ম্যানেজার (মার্কেটিং) চৌধুরী ফজলে আকবার, ফাইন্যান্স কন্ট্রোলার মো. জহির উদ্দিন, সিনিয়র ব্রান্ড ম্যানেজার মো. নাজমুল হক ও প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের অ্যাসিসটেন্ট জেনারেল ম্যানেজার (জনসংযোগ) জিয়াউল হকসহ কোম্পানির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

রংপুর মেটাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান বলেন, আরএফএল সমাজের সব শ্রেণি-পেশার মানুষের জন্য সাশ্রয়ী দামে গুণগত মানসম্পন্ন নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় সকল ধরনের পণ্য তৈরি করে। সব ধরনের ভোক্তার আরএফএল পণ্যের প্রতি ইতিবাচক সাড়া আমাদেরকে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে সহায়তা করেছে। সুতরাং সমাজের প্রতি আমাদের দায়বদ্ধতা রয়েছে। সেই দায়বদ্ধতা থেকেই ‘ক্ষুধা না চুলা জ্বলুক’ শীর্ষক ক্যাম্পেইন হাতে নিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, বৃদ্ধ বয়সে মানুষের সেবা এবং সহযোগিতা বেশী প্রয়োজন। কিন্তু পরিবারের সদস্যদের অবহেলাসহ নানা কারণে তাদের স্থান হয় বৃদ্ধাশ্রমে। এই পরিবার পরিজনহীন নিঃসঙ্গ মানুষগুলোর পাশে দাঁড়ানো একটি বৃহৎ শিল্পগোষ্ঠী হিসেবে আমাদের নৈতিক দায়িত্ব।

আরএফএল গ্যাস স্টোভেরর প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা তাকবীর রহমান বলেন, আরএফএল গ্যাস স্টোভের স্লোগান হচ্ছে ‘পরিবারের একজন, চিরদিনের বন্ধন’। বাবা-মা পরিবারের অবিচ্ছেদ্য অংশ। যারা এক সময় নানা প্রতিকূলতার মাঝেও পরিবারকে আগলে রাখতো, এখন বন্ধন ছিন্ন করে সন্তানেরা পিতা-মাতাকে বৃদ্ধাশ্রমে রেখে আসে। তারা পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হচ্ছে। আমরা চায় বৃদ্ধ পিতা-মাতার স্থান হোক পরিবারে, বৃদ্ধাশ্রমে নয়।

তিনি আরও বলেন, বৃদ্ধাশ্রমে যারা থাকে তাদের মুখে হাঁসি ফোটানোর জন্য আমাদের এ উদ্যোগ। প্রতি মাসে আরএফএল যে পরিমাণ গ্যাস স্টোভ বিক্রি করবে, সেখান থেকে গ্যাস স্টোভ প্রতি ১০ টাকা জমা হবে তাদের কল্যাণে। আয়কৃত অর্থ প্রতি মাসে যাবে একেকটি বৃদ্ধাশ্রমে। এ ক্যাম্পেইনটি প্রাথমিকভাবে ছয় মাস চলবে।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: