এ আর রাশেদ

ইবি প্রতিনিধি

ব্যতিক্রমধর্মী আয়োজন, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বৃক্ষ উৎসব’

   
প্রকাশিত: ৬:২০ অপরাহ্ণ, ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) প্রথবারের মত ‘বৃক্ষ উৎসব’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের উদ্যোগে সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) রবীন্দ্র-নজরুল কলা ভবনে ব্যতিক্রমধর্মী এ আয়োজন করা হয়। উৎসবে বৃক্ষপুরাণ, পুষ্পকথা, কবিতা পাঠ, নৃত্য পরিবেশন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সরওয়ার মুর্শেদের সভাপতিত্বে বৃক্ষ উৎসবের প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা।

অনুষদীয় সূত্রে জানা যায়, বেলা ১২টায় রবীন্দ্র-নজরুল কলা ভবনে ‘রবীন্দ্র সংগীত’ ও ‘নজরুল গীতি’র তালে নৃত্য পরিবেশনের মধ্য দিয়ে এ উৎসব শুরু হয়। এসময় রাজশাহী অঞ্চলের চাঁপাই নওয়াবগঞ্জের বিখ্যাত ‘গম্ভীরা’ পরিবেশনের মাধ্যমে ‘বৃক্ষ বন্দনা’ করেন বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

এরপর অনুষ্ঠানে স্বরোচিত বৃক্ষপুরাণ, পুষ্পকথা ও কবিতা পাঠ করেন বিশ^বিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মোহাঃ সাইদুর রহমান, অধ্যাপক ড. মনজুর রহমান ও অধ্যাপক ড. শেখ রেজাউল করিম।

পরে বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. রশিদুজ্জামানের সঞ্চালনায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. রেবা ম-ল, অধ্যাপক ড. তোজাম্মেল হোসেন, অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান, সহযোগী অধ্যাপক ড. সাইফুজ্জামান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বক্তারা বলেন, বৃক্ষ আমাদের সবচেয়ে বড় বন্ধু। কিন্তু দিন দিন আমরা বৃক্ষ নিধন করেই চলেছি। বিশ্বজুড়েই এই নিধনযজ্ঞ চলছে। ফলে অতিসম্প্রতি ‘পৃথিবীর ফুসফুস’ খ্যাত আমাজান মহাবনও হুমকির মুখে পড়েছে। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বেশি বেশি বৃক্ষরোপনই এখন আমাদের একমাত্র সমাধান।

আলোচনা সভা শেষে কলা অনুষদের প্রধান ফটকের সামনে পলাশ চারা রোপন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন উর রশিদ আসকারী। এসময় উপস্থিত ছিলেন কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সরওয়ার মুর্শেদ, বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. সাইদুর রহমান, ড. ইয়াসমিন আরা সাথীসহ শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

এআইআ/এইচি

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: