প্রচ্ছদ / ভারত / বিস্তারিত

ভারতের হোটেলে আটকে রেখে ৯ বাংলাদেশি তরুণীকে দিয়ে দেহব্যবসা

   
প্রকাশিত: ১০:২২ অপরাহ্ণ, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

ফাইল ছবি

ভারতে যৌন ব্যবসায় বাধ্য করানোর বড়সড় একটি চক্রের খোঁজ পেয়েছে দেশটির পুলিশ। মূলত চাকরির টোপ দিয়ে তাদের হাত করতো এ চক্রটি।

চক্রটিকে ধরতে গিয়ে একদিনে ১৩ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে ৯ জনই বাংলাদেশি। পশ্চিমবঙ্গের উঠতি এক মডেলের দেয়া তথ্য সূত্রে সম্প্রতি চক্রটির সন্ধান পায় ভারতের পুলিশ। এরপর অভিযানে চালানো হয়।

ভারতীয় গণমাধ্যম দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, চক্রটি অল্প বয়সী মেয়েদের ইন্দোরের বিজয় নগর এলাকার একটি হোটেলে আটকে রেখেছিল।

জানা গেছে, পশ্চিমবঙ্গের ওই মডেল সম্প্রতি মুম্বাইয়ের আরেক মডেলের সঙ্গে একটি ইভেন্টে অংশ নেন। ইভেন্টের নারী ম্যানেজারের প্রস্তাবে কাজ করতে গিয়ে তারা ফাঁদে পড়েন। দুজনকে মারধর করে যৌন ব্যবসায় বাধ্য করা হয়। পরে তারা কৌশলে সেখান থেকে পালিয়ে থানায় আশ্রয় নেন। উদ্ধার হওয়া ১৩ জনের বয়স ১৬ থেকে ৩০।

গ্রেপ্তার হওয়া সাত পুরুষের মধ্যে তিনজনের নাম জানা গেছে, তারা হলেন- নবীন সিসোদিয়া, কুলদীপ চন্দ্রস্বামী, রাজেন্দ্র দাওয়ার।

এর আগে ১২ সেপ্টেম্বর একইভাবে দেশটির গুজরাট রাজ্যের সুরত এলাকার একটি স্পা সেন্টার থেকে ১৪ বছর বয়সী এক বাংলাদেশি কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়। খুলনা থেকে পাচার হওয়া মেয়েটি মোট চারবার বিক্রি হয়!

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: