ভারতে করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের নতুন রেকর্ড

   
প্রকাশিত: ১:২১ অপরাহ্ণ, ৩০ মে ২০২০

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনাভাইরাসে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার বেড়েছে। যা অন্যদিনের তুলনায় রেকর্ড পরিমাণ। গত একদিনে দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৭ হাজার ৯৬৪ জন। যা শুক্রবার ছিল সাড়ে সাত হাজার। আর করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ২৬৫ জনের। যা একদিনে মৃত্যুর নিরিখে রেকর্ড। তবে একই সময়ে সুস্থ হয়েছেন ১১ হাজারেরও বেশি মানুষ। দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আক্রান্ত হয়েছেন ৭ হাজার ৯৬৪ জন। এক দিনে এত সংখ্যক লোক এর আগে সংক্রমিত হয়নি। এ নিয়ে ভারতে করোনাভাইরাসে মোট আক্রান্ত হলেন ১ লাখ ৭৩ হাজার ৭৬৩ জন। আক্রান্তের দিক থেকে সবচেয়ে বেশি মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি ও গুজরাত এই চার রাজ্যে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসেবে গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে মৃত্যু হয়েছে ২৬৫ জনের। যা এক দিনে মৃত্যুর নিরিখে রেকর্ড। এ নিয়ে দেশটিতে কোভিড-১৯’র কারণে মোট মৃত্যু হল ৪ হাজার ৯৭১ জনের। এর মধ্যে মহারাষ্ট্রেই মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৯৮ জনের, গুজরাটে ৯৮০, দিল্লিতে ৩৯৮, মধ্যপ্রদেশে ৩৩০, পশ্চিমবঙ্গে ৩০২, উত্তরপ্রদেশে ২০১, রাজস্থানে ১৮৪ ও তামিলনাড়ুতে ১৫৪ জন। ভারতে সংক্রমণের হারে শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র। গত ২৪ ঘণ্টায় এই রাজ্যে ২ হাজার ৬৮২ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা হল ৬২ হাজার ২২৮ জন। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু। সে রাজ্যে কোভিড-১৯-এ আক্রান্তের সংখ্যা ২০ হাজার ২৪৬ জন। এর পরেই রয়েছে রাজধানী নয়াদিল্লি। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ হাজার ৩৮৬ জন। গুজরাটে আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ হাজার ৯৩৪ জন। এ খবর দিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা।

এর পর ক্রমান্বয়ে রয়েছে রাজস্থানে ৮ হাজার ৩৬৫, মধ্যপ্রদেশে ৭ হাজার ৬৪৫, উত্তরপ্রদেশে ৭ হাজার ২৮৪, পশ্চিমবঙ্গে ৪ হাজার ৮১৩, অন্ধ্রপ্রদেশে ৩ হাজার ৪৩৬, বিহারে ৩ হাজার ৩৭৬, কর্নাটকে ২ হাজার ৭৮১, তেলঙ্গানায় ২ হাজার ৪২৫, পঞ্জাবে ২ হাজার ১৯৭, জম্মু-কাশ্মীরে ২ হাজার ১৬৪, ওড়িশায় ১ হাজার ৭২৩, হরিয়ানায় ১ হাজার ৭২১ এবং কেরালায় ১ হাজার ১৫০ জন। পশ্চিমবঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৭৭ জন। এখন পর্যন্ত এই রাজ্যে মোট মৃত্যু হয়েছে ৩০২ জনের। তবে এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় ১ জুন অফিস-আদালত খুলে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: