প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

ভারত-চীন সীমান্ত বিরোধ নিয়ে যা বললেন ট্রাম্প

   
প্রকাশিত: ৮:১৯ পূর্বাহ্ণ, ২৮ মে ২০২০

ভারত ও চীনের মধ্যে সীমান্তে উত্তেজনার সরগম চলছে দুই দেশের সীমান্তবর্তী সেনাদের মধ্যে। এমন পরিস্থিতিতে দুই দেশেই উত্তেজনা বিরাজ করছে। আর এরমধ্যেই এই দুই দেশের মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। প্রয়োজনে যুক্তরাষ্ট্র ওই দুই দেশের বিরোধের মধ্যস্থতা করতে প্রস্তুত বলে প্রস্তাব দিয়েছেন যুক্তরাষ্টের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বুধবার (২৭ মে) টুইট করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানান, আমরা ভারত ও চীন দুই দেশকেই জানিয়েছি যে আমেরিকা তাদের মধ্যেকার ক্রমবর্ধমান সীমান্ত বিরোধের মধ্যস্থতা বা সালিশি করতে প্রস্তুত, ইচ্ছুক এবং সক্ষম। আপনাদের ধন্যবাদ!

সিকিম ও লাদাখ সীমান্তে হঠাৎই চীন এবং ভারতীয় সেনার মধ্যে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। উপগ্রহ চিত্রে দেখা গেছে, বেজিং লাদাখের কাছে তাদের বিমানবন্দর সম্প্রসারণের কাজ চালাচ্ছে। কয়েকটি যুদ্ধবিমানও প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

শুধু ভারতই নয়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনার সঙ্গেও উত্তেজনা তৈরি হয়েছে চীনের সেনাবাহিনীর। এরই মধ্যে আবার মার্কিন নৌবাহিনীকে বিতর্কিত দক্ষিণ চীন সাগরে টহল দিতেও দেখা গিয়েছে। পাশাপাশি করোনা সংক্রমণকে কেন্দ্র করেও উত্তপ্ত বাদানুবাদ হয়েছে চীন ও আমেরিকার।

৯ মে, একটি ভারতীয় টহলদারী দলের কমপক্ষে ১৫ থেকে ২০ জন কর্মীর সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে চীনা সেনারা। ভারতের তরফ থেকে অভিযোগ করা হয়, ভারত-চীন সীমান্ত পেরিয়ে ভারতীয় ভূখণ্ডের অভ্যন্তরে প্রবেশের চেষ্টা করে চিনের সেনাবাহিনী। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ককে তখনই জানানো হয় মোটরচালিত নৌকাগুলোর সাহায্যে পানগং হ্রদে ঘোরাফেরা করছে তারা।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সীমান্তরেখায় রীতিমতো তৎপর রয়েছে দেশের সেনাবাহিনী। কেন্দ্রের দাবি, ভারত বরাবরই সীমান্তের ভারসাম্য রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। একই সঙ্গে এও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ভারত দেশের নিরাপত্তা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: