প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

মঙ্গলবার তাপপ্রবাহে পারদ ছুঁতে পারে ৪১ ডিগ্রি

   
প্রকাশিত: ১২:০০ পূর্বাহ্ণ, ৭ এপ্রিল ২০২০

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় শিলাসহ বজ্রবৃষ্টি হওয়ায় গত কয়েকদিন ধরে ঠান্ডা আবহাওয়া বিরাজ করছে। তবে সোমবার (৬ এপ্রিল) থেকে আবারও তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করেছে। এতে কিছুটা অস্বস্তিতে জনজীবন। আবহাওয়া অফিস বলছে- রাঙামাটি, সিলেট, রাজশাহী, ও পাবনা অঞ্চলসহ ঢাকা ও খুলনা বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে, তা অব্যাহত থাকতে পারে এবং আরও বিস্তার লাভ করতে পারে। সামনে তাপমাত্রা আরও বাড়তে পারে। আর কয়েকদিন পরই শুরু হবে গ্রীষ্মকাল। এ ঋতুতে বেশিরভাগ সময় আবহাওয়া গরম থাকে। তবে বৃষ্টি হলে তাপমাত্রা কিছুটা কমতে পারে।

আবহাওয়া গবেষণা সংস্থা অ্যাকুওয়েদার বলছে, আগামী মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) দুপুরের দিকে দেশের কোথাও কোথাও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪১ ডিগ্রি সেলসিয়াস হতে পারে। ধূসর রোদ, কম আর্দ্রতাসহ গরম থাকতে পারে। এ সময় বাতাসের মান খুবই অস্বাস্থ্যকর। এছাড়া আগামী বুধবার দুপুরের দিকে কোথাও কোথাও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস হতে পারে। এ সময় আংশিক রোদ ও গরম থাকবে।

আবহাওয়াবিদ ড. মুহাম্মদ আবুল কালাম মল্লিক বার্তা২৪.কম-কে বলেন, ‘আগামী কয়েকদিন তাপমাত্রা বেড়ে ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত হতে পারে। আপাতত এর বেশি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। তবে দেশের উপর যে মৃদু তাপপ্রবাহ বেয়ে যাচ্ছে, তা ক্রমান্বয়ে বিস্তার লাভ করতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আজকে চৈত্রের ২২ তারিখ। আর কিছুদিন পর গ্রীষ্ম ঋতু শুরু হবে। বেশিরভাগ সময় গরম থাকাটাই স্বাভাবিক। তবে এ সময় হঠাৎ করেই বৃষ্টি হতে পারে। এর সঙ্গে বজ্রপাত হতে পারে। পাশাপাশি শিলা বৃষ্টিরও সম্ভাবনা রয়েছে। তবে বৃষ্টি বেশি সময় হবে না।’

অ্যাকুওয়েদারের এক সপ্তাহের আবহাওয়া পূর্বাভাস-
এদিকে বর্তমানে সারা বিশ্বে করোনাভাইরাস যেন একটি আতঙ্কের নাম। এ থেকে বাদ যায়নি বাংলাদেশও। ক্রমান্বয়ে বাড়তে শুরু করেছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। গরমে নাকি করোনা সংক্রমণ বিস্তার করতে পারে না বলে দাবি কিছু চিকিৎসকের। তাই এই গরম আবহাওয়াতে দেশবাসীর মধ্যে কিছুটা স্বস্তি ফিরতে পারে বলেও মনে করছেন অনেকে।

রোববার সকালে রাজধানীতে ঠান্ডা আবহাওয়া বিরাজ করে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রোদের প্রখরতা বাড়ে। একইসঙ্গে গরমও বাড়ে। ঢাকায় বাতাসের গতি ঘণ্টায় ৮ থেকে ১২ কিলোমিটার বেগে বয়ে যাচ্ছে।

এদিন সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ফরিদপুরে ৩৮.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায় ১৫.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গত শনিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোরে ৩৭.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল তেঁতুলিয়ায় ১৪.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

সোমবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়া পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। ফলে অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। তবে বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে। ঢাকায় বাতাসের গতি বেগে ঘণ্টায় ৮ থেকে ১২ কিলোমিটার বেগে বয়ে যেতে পারে। আগামী দুই দিনে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া আগামী পাঁচ দিনের শেষের দিকে দিন ও রাতের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: