প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

মো: মিজানুর রহমান

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

মজুরী বৃদ্ধির দাবিতে হ্যান্ডলিং শ্রমিকদের শুক্রবার থেকে কর্মবিরতির ঘোষণা

   
প্রকাশিত: ৮:৪৭ অপরাহ্ণ, ১৫ জানুয়ারি ২০২০

মজুরী বৃদ্ধির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করে কর্মবিরতি পালনের ঘোষণা দিয়েছেন কালীগঞ্জ উপজেলা হ্যান্ডলিং শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ। বুধবার (১৫ জানুয়ারি) বিকেলে কাশিপুর রেলগেটস্থ সংগঠনের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বৃহস্পতিবার কাজ বন্ধের মাইকিং প্রচার ও শুক্রবার থেকে কর্মবিরতির পালনের ঘোষণা দেয়া হয়। কালীগঞ্জ ধানহাটা মালিক সমিতি ও স্থানীয় প্রশাসন তাদের মজুরী বৃদ্ধির দাবির প্রতি সহানুভুতিশীল না হওয়ায় তারা এসব কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, কালীগঞ্জ উপজেলা হ্যান্ডলিং শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক বাদশা মিয়া। লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান, চলমান সভ্য সমাজ ব্যবস্থায় জীবন জীবীকা রক্ষায় কুলি-মজদুর শ্রমিকরা ধুলা,বালি,ময়লা, কাঁদা উপেক্ষা করে মাথায় ও পিঠে ভারী বস্তা লোড আনলোড করে ব্যবসা বানিজ্যের চাকা চলমান রেখে রাষ্ট্রীয় উন্নয়নে প্রশংনীয় অবদান রাখলেও পেট পুরে দু-মুঠো ভাত খেতে পারছে না। বর্তমানে সবকিছুর মূল্য বৃদ্ধি পেলেও তাদের মজুরী বৃদ্ধি পায়নি। আমদামি-রপ্তারি, লোড-আডলোডের মূল্য অন্যান্য বাজারে বৃদ্ধি পেলেও কালীগঞ্জ ধানহাটা মালিক সমিতি তাদের মজুরী বৃদ্ধি করেনি। তারা শহরে আমদানি রপ্তানি বাবদ মণ প্রতি ১২ টাকার থেকে ১৮ টাকা এবং গ্রামগঞ্জে ১৪ টাকা থেকে ২৫ টাকা এছাড়া শুধুমাত্র লোড-আনলোড বাবদ ৫ টাকা থেকে ৮ টাকা বৃদ্ধির দাবি করে মালিক পক্ষ ও উপজেলা প্রশাসনের কাছে লিখিত আবেদন জানান। কিন্তু তাদের দাবিকে মালিক পক্ষ ও স্থানীয় প্রশাসন কর্ণপাত না করায় তারা শহরে মাইকিং, বিক্ষোভ মিছিল ও কর্মবিরতি পালনের কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে তারা আরো উল্লেখ করেন, কোটচাঁদপুর উপজেলার ধানহাটায় আমদামি ৫ টাকা, লোড ১৩ টাকা, আনলোড ৭ টাকা, বারবাজার ধানহাটায় আমদানি করানো লোড ১৩ টাকা, আনলোড ৬ টাকা, চাইরাইল বাজারের ধানহাটায় আমদানী ৩ টাকা, লোড ১৩ টাকা ও আনলোড ৬ টাকা, কোলাবাজারের ধানহাটায় আমদানি আড়াই টাকা, লোড ১০ টাকা, আনলোড ৬ টাকা, ঝিনাইদহ সদর উপজেলার তেঁতুলতলা বাজারে আমদানি ৩ টাকা, লোড ১৩ টাকা এবং বিষয়খালী বাজারে আমদানি ৩ টাকা, লোড ১৪ টাকা ও আনলোড ৬ টাকা মণ প্রতি নির্ধারণ রয়েছে। কিন্তু কালীগঞ্জ ধানহাটা মালিকরা তাদের আমদানি রপ্তানি ও লোড আনলোড সব মিলে মণ প্রতি মোট ১২ টাকা করে দেয়। তারা ১২ টাকা মজুরীর পরিবর্তে ১৮ টাকা দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, হ্যান্ডলিং শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সিদ্দিক ম-ল, সহ-সভাপতি সোনা মিয়া, সাবেক সভাপতি লিয়াকত আলী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শুকুর আলী, শ্রমিক নেতা মন্টু গোপাল বাবু, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কালীগঞ্জ উপজেলা সভাপতি আমির হামজা বাবলু।
তবে এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুবর্ণা রানী সাহা বলেন, আমি একটি লিখিত আবেদন পেয়েছি। কিন্তু ব্যস্ততার কারনে তা দেখতে সময় পায়নি। তবে বিষয়টির তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিব।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: