প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

মাদক ছেড়ে আলোর পথে স্বামী-স্ত্রী

   
প্রকাশিত: ১১:৩০ পূর্বাহ্ণ, ২৮ অক্টোবর ২০২০

মনিরুল ইসলাম, মৌলভীবাজার থেকে: মাদক তাদের স্বাভাবিক জীবনকে অনেকটা বিষিয়ে তুলেছে।দীর্ঘদিন তাদের সম্পর্ক ছিল মাদকের অন্ধকার জগতে। মাদকের সাথে সম্পর্ক ছিল নিত্যদিনের। দিনে আত্মগোপন, রাতে পুলিশের ভয়ে নির্ঘুম কাটানো ছিল প্রতিদিনের ঘটনা। সেই সঙ্গে মরণঘাতী মাদকের ভয়াবহ ছোবলে বিষিয়ে তুলেছিল নিজেদের সহ অনেক স্বাভাবিক জীবন। প্রতিটি মুহূর্ত যেন ভয় আর উৎকণ্ঠায় কাটছিল। এর মধ্যেও মাসে মাসে মামলার ঘানি টানতে আদালতে কাঠগড়ায়। কখনোবা স্বজনদের ছেড়ে জেলখানার চার দেয়ালে বন্দি।জীবনের অনিশ্চিয়তা ছিল প্রতিটি মূহুর্তে।মাদকের করাল গ্রাসে সব মিলিয়ে ধীরে ধীরে ছোট হয়ে আসছিল তাদের অভিশপ্ত জীবন।অনিশ্চয়তা যেন কাটছিল না।

এতক্ষন বলছিলাম মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার কৌলা এলাকার মাদক ব্যবসায়ী কয়েস আহমদ ও তাঁর স্ত্রী রায়না আক্তারের কথা।উপজেলার মধ্যে এরা চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী দম্পতি। প্রশাসন থেকে শুরু করে এলাকার প্রতিটি মানুষই এ দম্পতি কে মাদক ব্যবসায়ী হিসাবে জানতেন। ইয়াবা, গাঁজাসহ নানান মাদক বিক্রি করতেন তাঁরা। দীর্ঘদিন পর মাদক বিক্রির অন্ধকার জগৎ ছেড়ে আলোর পথে যাওয়ার জন্য কুলাউড়া থানায় এসে আত্মসমর্পণ করলেন এ দম্পতি।

আলোর পথে ফিরতে ২৭ অক্টোবর রাতে কুলাউড়া থানায় এসে আত্মসমর্পণ করেন মাদক ব্যাবসায়ী এ দম্পতি। পুলিশের পক্ষ থেকে তাদেরকে ফুল দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার জন্য শুভেচ্ছা জানানো হয়।

প্রতিবেদক কে এ দম্পতি বলেন, খুঁজে পেয়েছি আলোর দেখা। মা-ভাই এবং স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে বেশ জীবন সংসার ভালো ভাবে কাটাতে চাই। দেখছি সৎ পথে বড় হওয়ার স্বপ্ন।অাশা করছি মানুষের কাছ থেকে আত্মসম্মান পাব।

কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ইয়ারদৌস হাসান বলেন, মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীরা দেশ তথা সমাজের শত্রু।যারা মাদকের অন্ধকার জগৎ থেকে ফিরে আসতে চায় তাদেরকে পুলিশ সহযোগীতা করবে।তিনি আরও বলেন, স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসা এই দুই স্বামী-স্ত্রী কয়েস ও রায়নাকে পুলিশ সবসময় সহযোগিতা করবে ও তাদের পাশে থাকবে।

এআইআর/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: