প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

মিরপুরে ভয়াবহ আগুন

   
প্রকাশিত: ৮:০৪ পূর্বাহ্ণ, ২৪ জানুয়ারি ২০২০

বাংলাদেশের রাজধানীর ঢাকার মিরপুর ৭ নম্বরের চলন্তিকা বস্তিতে আগুন লেগে দেড়শতেরও বেশি ঘর পুড়ে গেছে। সর্বস্ব পুড়ে যাওয়ায় বস্তিবাসীদের অনেকেই কান্নায় ভেঙে পড়েছেন। এঘটনায় আহত হয়েছে ১ জন। ফায়ার সার্ভিসের ১৫টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রনে কাজ করে।

শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) ভোর ৪টা ১১ মিনিটে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের মোট ১৫টি ইউনিট প্রায় দেড় ঘণ্টার প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ফায়ার সার্ভিস কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে বলা হয়, আগুন লাগার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের বিভিন্ন স্টেশন থেকে ১৫টি ইউনিট ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। দুই ঘণ্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এ ঘটনায় পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ফায়ার সার্ভিস।

এর আগে গত বছর, ১৭ই আগষ্ট শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে রূপনগর থানার পেছনে চলন্তিকা মোড়ের ঝিলপাড় বস্তিতে আগুন লাগে। সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সাতটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে। আগুনের ব্যাপকতা দেখে পরে আরও ইউনিট বাড়ানো হয়। শেষ পর্যন্ত ২৪টি ইউনিট কাজ করে র‍্যাব, পুলিশ, ওয়াসা ও স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় রাত সাড়ে ১০টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়। এ ঘটনায় আহত চারজনের মধ্যে তিনজনের নাম জানা গেছে। তাঁরা হলেন: রফিক, কবির (৩৫) ও হাবীব (১৯)।

আগুনের খবর পেয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম ও স্থানীয় সাংসদ ইলিয়াস মোল্যা ঘটনাস্থলে যান। তাঁরা ক্ষতিগ্রস্ত লোকজনকে সহায়তা আশ্বাস দেন। মেয়র বলেন, ‘মিরপুর-৭ নম্বর বস্তিতে যারা বসবাস করতেন রাতে থাকার জন্য আশেপাশের যত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে সবগুলো খুলে দেওয়া হবে। আগুনে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের খাবারের ব্যবস্থা হচ্ছে। রাতের মধ্যে একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হবে।’

এআইআ/এইচি

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: