মির্জাপুরে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত, ৫০ পরিবার লকডাউন

   
প্রকাশিত: ১২:৫০ অপরাহ্ণ, ৮ এপ্রিল ২০২০

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার ভাওড়া ইউনিয়নের ভাওড়া বৈরাগী পাড়া গ্রামে প্রথম এক ব্যক্তির করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। ঐ ব্যক্তি নারায়ণগঞ্জ থেকে করোনার উপসর্গ নিয়ে বাড়ি আসছিলেন। করোনা রোগী সনাক্ত হওয়ায় প্রশাসন থেকে ঐ গ্রামের ৪০-৫০টি পরিবার লকডাউন করে হয়েছে। প্রথম করোনা রোগী সনাক্ত হওয়ায় মির্জাপুরে আতংক ছড়িয়ে পড়েছে।

আজ বুধবার (৮ এপ্রিল) ভাওড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আমজাদ হোসেন জানান, ঐ ব্যক্তির নাম অনিল সরকার (৫০), পিতার নাম হরিদাস সরকার। তিনি নারায়নগঞ্জের একটি ক্লিনিকে কাজ করতেন। করোনা ভাইরাস সংক্রমন উপসর্গ (জ্বর, গলা ব্যথা, শরীর ব্যথা, সর্দি) নিয়ে গত রবিবার (৫ এপ্রিল) বাড়ি আসেন। আশপাশের লোকজনের সন্দেহ হলে তারা ঘটনাটি উপজেলা প্রশসনকে জানায়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক, সহকারী কমিশনার (ভুমি) মো. যুবায়ের হোসেন, মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সায়েদুর রহমান এবং উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা ডা. মাকসুদা খানম মেডিকেল টিম নিয়ে তার রক্তের পরীক্ষা করার জন্য ঢাকায় আইইডিসিআর এ পাঠান। এ সময় তার বাড়ি লগডাউন করা হয়। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা ডা. মাকসুদা খানম বলেন, রক্তের পরীক্ষার পর গতকাল মঙ্গলবার রিপোর্টে পজেটিভ ধরা পড়ে। মেডিকেল বোর্ড গঠন করে উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় রাতেই তাকে ঢাকায় কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। গ্রামের ৪০-৫০ টি পরিবার লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. যুবায়ের হোসেন বলেন, করোনা ভাইরাসে সনাক্ত ব্যক্তিকে ঢাকায় কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। উপজেলা প্রশাসন, মেডিকেল টিম ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছেন।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: