প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

সুমিত সরকার সুমন

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি

মুন্সীগঞ্জে দুই দফা হামলায় পৌর প্যানেল মেয়রসহ ১১ জন আহত

   
প্রকাশিত: ১০:১৯ অপরাহ্ণ, ২৯ নভেম্বর ২০২০

মুন্সীগঞ্জ শহরের ফরাজীবাড়ি ঘাট ও পিটিআই মোড়ে রোববার দুই দফা হামলায় অন্তত ১১ জন আহত হয়েছে। রোববার (২৯ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে ফরাজী বাড়ি ঘাট ও বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে ওই হামলার ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে আরিফ মিজি (৪৫) ও আমজাদ হোসেনকে (৩৮) মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর আহত মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার প্যানেল মেয়র সুলতান বেপারি (৭০), গাজী মাদবর (৬০), রহম আলী মাদবর (৬৫), সুমন হাজারী (৪৫), বাবুল হোসেন (৫০), মো. সাইমুন (১৫), মনিকা আক্তার (১৩), সিহাম (১৫) ও সিফাতকে (১৫) প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে পিটিআই মোড়ে উত্তর ইসলামপুর এলাকার রাতুল ও সিহাবের নেতৃত্বে একটি গ্রুপ ছোরা-চাপাতি নিয়ে মোল্লারচর এলাকার আরিফ মিজির উপর চড়াও হয়। পরে সিহাবসহ তার সঙ্গবদ্ধ দল রামদা দিয়ে আরিফ মিজিকে এলোপাতারী কুপিয়ে জখম করে। এতে স্থানীয় এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে আজিম ও মোল্লারচর এলাকার গাজী মাদবর নামের দুইজনকে ছোরা দিয়ে পেটে ও হাতে আজ্ঞাত করে।

আহত আরিফ মিজি জানায়, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে ক্রিকেট খেলা ও পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মোল্লারচর ও উত্তর ইসলামপুর এলাকার ছোট ছেলেদের সাথে একটি হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে উত্তর ইসলামপুরের রাতুলের বাবা ফজল হক ও কাউন্সিলর পদপ্রার্থী আওলাদ হোসেন মিন্টুসহ ২০-২৫ জন মাদবর এলাকায় গিয়ে বিষয়টি মিমাংসা করার তারিখ দেয়। তারিখ অনুযায়ী শনিবার সকালে মোল্লারচর বাজার উভয় পক্ষের সম্মতিতে বিষয়টি মিমাংসিত হয়। তিনি বলেন রোববার সকালে মোল্লারচর এলাকার দিনমজুর বাবুল হোসেন (৫০) ও তার নাতী সাইমন (১৫) নাতনি মনিকা আক্তার বাজারে যাওয়ার পথে ফেরাজীবাড়ি ঘাট এলাকায় সিহাব ও জুনায়েদসহ ১০-১২জন মিলে লোহার রড দিয়ে গুরুতর জখম করে।

এ ঘটনায় উত্তর ইসলামপুর এলকার পঞ্চায়েত কমিটির মাদবর আসাদ উদ্দিন ও সৈয়দ মাদবরের কাছে ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলরসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ নিয়ে বিচার চাইতে এলে, আগে থেকেই ছুরি চাপাতি নিয়ে শীর্ষ সন্ত্রাসী রাতুল ও সিহাব গ্রুপ বসে থাকে। পরে আমাকেসহ কয়েকজনকে ছুরি ও রামদা দিয়ে এলোপাতারী কুপিয়ে জখম করে।

এ বিষয়ে সদর থানার ওসি অপারেশন আবু হানিফ রানা জানান এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। উভয় এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

 

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: