প্রচ্ছদ / স্পোর্টস / বিস্তারিত

মুসলিম ক্রিকেটারের গায়ে মদ ঢালা নিয়ে তুলকালাম!

   
প্রকাশিত: ১০:০৮ পূর্বাহ্ণ, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

মুসলিম খেলোয়াড়েরা মদ থেকে দূরে থাকেন। অনেক ক্রিকেটার এবং ফুটবলাররা মদ প্রস্তুতকারক কোম্পানির লোগো পর্যন্ত নিজেদের জার্সিতে ব্যবহার করেন না। এবার বব উইলিস ট্রফিতে একটি ঘটনা বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। শিরোপাজয়ী এসেক্সের ক্রিকেটারেরা ট্রফি নিয়ে লর্ডসের বারান্দায় মদ ছিটিয়ে উল্লাস করছিলেন। সেই দলে ছিলেন মুসলিম ক্রিকেটার ফিরোজ খুশি। যার ওপরে তার এক সতীর্থ মদ ঢেলেছিলেন। এ নিয়ে সোশ্যাল সাইটে চলছে শোরগোল।

এসেক্সে জন্ম নেওয়া ২১ বছর বয়সী ফিরোজ একজন মুসলিম ক্রিকেটার। তার ওপর বিয়ার ঢেলেছিলেন অতিরিক্ত উইকেটরক্ষক উইল বাটলম্যান। এসেক্স ক্রিকেটারদের এমন আচরণের সমালোচনা করে পূর্ব লন্ডনে জাতীয় ক্রিকেট লিগের প্রতিষ্ঠাতা সাজিদ প্যাটেল বলেছেন, ‘ফিরোজ বারান্দার কোনায় দাঁড়িয়ে ছিল। নড়তেও পারছিল না। একটা কাজই সে করতে পারত-লাফ দেওয়া। তার গায়ে কারও অ্যালকোহল জাতীয় পদার্থ ঢালার ছবিটা একটি নারকীয় দৃশ্য।’

তবে এসেক্সের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ফাইনালের দ্বাদশ খেলোয়াড় ফিরোজ খুশির ওপর বিয়ার ঢালাটা স্রেফ শিরোপা জয় উদযাপনের আনন্দে হয়েছে। এর মধ্যে নেতিবাচক কোনো উদ্দেশ্য ছিল না। তবে শিরোপাজয়ের উৎসবটা দেশের ‘মূল্যবোধ’-এর সঙ্গে মানানসই ছিল না বলে মনে করছে কাউন্টি দলটি। তারা এজন্য ক্ষমাও চেয়েছে। ব্রিটেনের সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্যের ওপর খেলোয়াড়দের আরও সচেতন করার পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে এসেক্স ঘোষণা করেছে।

এখন ব্রিটেনে প্রথম শ্রেণির ১৮টি কাউন্টি দল মিলিয়ে কৃষ্ণাঙ্গ, এশিয়ান ও সংখ্যালঘু ক্রিকেটার মাত্র ৩৩ জন। এসেক্সের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘বহুদিন ধরেই আমাদের দলে জাতিগত বৈচিত্র্য, আলাদা আলাদা ধর্মের ক্রিকেটাররা খেলে আসছেন। ক্লাব এই জাতিগত বৈচিত্র্য নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে কঠোরভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছে। তবে খেলায় জাতিগত বৈচিত্র্য ও সাংস্কৃতিক পার্থক্য নিয়ে খেলোয়াড়দের সচেতন করতে আরও কাজ করতে হবে।’

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: