ম্যারাডোনার মৃতদেহের সঙ্গে সেলফি, চাকরি গেল যুবকের!

   
প্রকাশিত: ৯:৪৪ পূর্বাহ্ণ, ২৮ নভেম্বর ২০২০

চিরদিনের জন্য পৃথিবী ছেড়ে বিদায় নিয়েছেন আর্জেন্টাইন ফুটবল কিংবদন্তি দিয়াগো ম্যারাডোনা। ফুটবলপ্রিয় মানুষের কাছে তিনি ছিলেন আপনজন। তাইতো তাঁর শেষ যাত্রায় করোনাভীতি উপেক্ষা করে মানুষের ঢল নেমেছিল। প্রিয় তারকাকে শেষবারের মতো একনজর দেখতে পুলিশের সঙ্গে বারবার সংঘর্ষে জড়িয়েছেন ভক্তরা। অনেকেই স্মৃতি ধরে রাখতে ম্যারাডোনার মৃতদেহের সঙ্গে ছবি তুলেছেন। কিন্তু এই ছবি তুলতে গিয়েই চাকরি গেছে এক যুবকের!

ম্যারাডোনা এত বড় মাপের একজন মহাতারকা ছিলেন যে, অতি বড় প্রতিদ্বন্দ্বীরাও তাঁর সঙ্গে ছবি তুলতে অস্বীকার করতেন না। কিন্তু দিয়েগো মোলিনার কপাল খারাপ। তিনি ছবি তুলতে গিয়ে নিয়ম ভেঙে ফেলেছেন। মেলিনা মূলত আর্জেন্টিনার প্রেসিডেনশিয়াল প্যালেস কাসা রোসাদায় মৃতদেহ সৎকার সংক্রান্ত কাজ করেন। কফিন খুলে ম্যারাডোনার মৃতদেহ দেখে আবেগের বশেই তিনি সেলফি তুলে ফেলেন। এটুকু হলেও হয়তো তার চাকরিটা যেত না। কিন্তু পেশাদারিত্ব ভুলে গিলে ছবিগুলো পোস্ট করে দেন সোশ্যাল সাইটে!

অনেকের মতে, যত ঝামেলার উৎস এই সোশ্যাল সাইট। মেলিনাও হয়তো এখন থেকে তাই বলবেন। কারণ সোশ্যাল সাইটে ছবিগুলো পোস্ট করায় তার চাকরিটা চলে গেছে। মেলিনারও বা দোষ কি? এত বড় একজন কিংবদন্তিকে হাতের নাগালে দেখে ছবি তোলার লোভ সামলাতে পারেননি। এই লোভে পড়েই তার চাকরিটা গেছে। শুধু তাই নয়, রীতিমতো পুলিশী হেফাজতে নেওয়া হয়েছে মেলিনাকে! ম্যারাডোনার আইনজীবী তথা একসময়ের ঘনিষ্ট বন্ধু মাতিয়াস মোরলা মেলিনার কঠোর শাস্তির দাবি করেছেন।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: