প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

মনজুরুল ইসলাম

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

ময়মনসিংহে পৃথক দুর্ঘটনায় নারীসহ নিহত ৩

   
প্রকাশিত: ৪:৪৭ অপরাহ্ণ, ২৮ আগস্ট ২০২০

ছবি: প্রতীকী

ময়মনসিংহে বিদ্যুৎপৃষ্ঠে এক নারী ও সড়ক দুর্ঘটনায় দুই মোটরসাকের আরোহীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (২৮ আগস্ট) সকালে জেলার সদর, ভালুকা ও মুক্তাগাছা উপজেলায় পৃথক তিনটি ঘটনা ঘটে। বিদ্যুৎপৃষ্ঠে সদর উপজেলার শম্ভুগঞ্জ এলাকায় তন্না চৌহান (৩৫) নামে এক নারীর মৃত্য হয়। তিনি শম্ভুগঞ্জ বাজার এলাকা বাসিন্দা। জেলার ভালুকায় ড্রামট্রাক চাপায় হেলাল খান (৩৫) নামে এক মোটরসাইকেল চালক নিহত হয়েছেন। নিহত হেলাল খান স্থানীয় একটি কারখানায় চাকরি করতেন বলে জানা গেছে। মুক্তাগাছায় সড়ক দুর্ঘটনায় রঞ্জিত মিত্র (৪৫) নামের একজন টিভি মেকানিক (টিভি মিস্ত্রি) নিহত হয়েছেন। রঞ্জিত মিত্র নগরীর চৌরঙ্গীর মোড় এলাকার বাসিন্দা।

সদর থানার ওসি ফিরোজ তালুকদার বলেন, সকালে সাড়ে ১০টার দিকে শম্ভুগঞ্জ পুরাতন গরু হাটে চামড়া বাজারের পাশে একটি গরু বিদ্যুতের খুঁটি তার ছিড়ে বিদ্যুৎপৃষ্ঠ হয়। এ সময় পাশের বাড়ির এক মহিলা দা দিয়ে বৈদ্যুতিক তার কেটে গরুকে বাঁচাতে চাইলে ঘটনাস্থলেই গরুসহ মহিলার মৃত্য হয়। পরে স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। তবে, এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ভালুকা মডেল থানার ওসি মাইন উদ্দিন বলেন, সকাল ৯টার দিকে ঢাকা ময়মনসিংহ-মহাসড়কের পৌরসভার বাঘরা এলাকায় মোটরসাইকেলটি ইউটার্ন নেয়ার সময় ময়মনসিংহ গামী একটি ড্রামট্রাক এসে মোটরসাইকেলটিকে চাপা দেয়। এতে মোটরসাইকেলের চালক হেলাল খান ঘটনাস্থলেই নিহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। তবে, এ ঘটনায় এখনো কোন অভিযোগ কেউ করেনি।

মুক্তাগাছা থানার ওসি বিপ্লব কুমার বিশ্বাস বলেন, সকাল সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার ময়মনসিংহ- মুক্তাগাছা সড়কের কুমারগাতা ইউনিয়নের সত্রাশিয়া বাজার এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি প্রাইভেটকার ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেল আরোহী রঞ্জিত মিত্রের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুইজন। আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: