যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট নির্বাচনে হ্যাট‌ট্রিক জয় বাংলাদেশি রূপার

   
প্রকাশিত: ১০:৪৩ পূর্বাহ্ণ, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯

যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের একটি আসন থেকে আবারও জয় পেলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক রুপা হক। শহরের ইলিং সেন্ট্রাল আসনে লেবার পার্টির হয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো বিজয়ী হয়েছেন তিনি। শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) প্রকাশিত নির্বাচনি ফলে দেখা যায়, রূপা হক ২৮ হাজার ১৩২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্র‌তিদ্বন্দ্বি কনজারভেটিভের জুলিয়ান গ্যালেন্ট পেয়েছেন ১৪ হাজার ৮৩২ ভোট।

১৯৭০ সা‌লে বাংলা‌দেশ থে‌কে যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমানো মোহাম্মদ হক ও রওশন আরা হক দম্প‌তির তিন মেয়ের সবার বড় রুপা। রূপা হকের জন্ম ও বেড়ে ওঠা লন্ডনে। মোহাম্মদ হকের বাড়ি পাবনা শহরের কুঠিপাড়ায়। রূপার ছোট‌বোন কোনি হক (কনক আশা হক) ব্রি‌টে‌নের খ্যা‌তিমান টে‌লি‌ভিশন উপস্থা‌পিকা ও লেখক। রাজনীতিতে নাম লেখানোর এই ব্রিটিশ বাংলাদেশি লন্ডনের কিংসটন বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজবিজ্ঞান পড়াতেন। সেখান সর্বশেষ জ্যেষ্ঠ প্রভাষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন এই কলামিস্ট ও লেখক। নিজ নির্বাচনী এলাকার ভেত‌রে ও বাইরে রূপা হক খুব জনপ্রিয় হলেও একদমই সাধারণ জীবনযাপন করেন। তার চলাফেরা ও বিনয়ী আচরণের জন্যও তিনি বেশ জনপ্রিয়। রূপার ছোট‌বোন কোনি হক (কনক আশা হক) ব্রি‌টে‌নের খ্যা‌তিমান টে‌লি‌ভিশন উপস্থা‌পিকা ও লেখক।।

জাতীয় ইস্যু ও লেবার পার্টির অভ্যন্তরের রাজনীতিতে বরাবরই তাকে সরাস‌রি পদক্ষেপ নিতে দেখা গেছে। সংসদে নানা ইস্যুতে ঝড় তুলে আলোচনার কেন্দ্রে উঠো আসেন রূপা। ২০১৮ সা‌লে বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর বোরকা নিয়ে করা তীর্যক মন্তব্যের জন্য নিজের কলামে বরিস জনসনকে ক্ষমা চাওয়া আহ্বান জানিয়েছিলেন তিনি। ৪৮ বছর বয়সী রূপা এর আগে অল্প ভোটের ব্যবধানে হলেও ২০১৫ সালের নির্বাচনে রক্ষণশীলদের হাত থেকে লন্ডনের ইলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাকটন আসনটি পুনরুদ্ধার করেন। ২০১৭ সালের নির্বাচনেও তিনি ব্যবধান বাড়িয়ে আসনটি ধরে রাখেন।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: