প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

ফরমান শেখ

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

শিশু শান্তার পাশে দাঁড়াল প্রিয় টাঙ্গাইল জেলা গ্রুপ

   
প্রকাশিত: ৩:৫৭ অপরাহ্ণ, ২৪ অক্টোবর ২০২০

দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া শিশু ছাত্রী শান্তা আক্তার। দীর্ঘদিন ধরে নানা অসুখে ভুগছিলেন। সে টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলার বিলাশপুর গ্রামের হতদরিদ্র ও অটো-ভ্যান চালক মো. সোহেল রানার মেয়ে। পরিবারের একমাত্র উপার্জন স্বক্ষম ব্যক্তি সোহেল রানা অর্থাভাবে তার মেয়ে শান্তাকে ঠিকমতো চিকিৎসা করাতে পারছিল না।

এমন অবস্থা দেখে স্থানীয় মো. হারুন তালুকদার নামে এক ব্যক্তি তার নিজ ফেসবুক টাইমলাইনে ওই শিশু মেয়েটির চিকিৎসার জন্য সাহায্য চেয়ে ফেসবুক পোস্ট দেয়। পরে তার পোস্টটি সামাজিক যোগাযোগ গণমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাইল হলে টাঙ্গাইলের (চঞত) ‘প্রিয় টাঙ্গাইল জেলা গ্রুপ’ নামে একটি সামাজিক সেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্য ও মেম্বারদের নজরে আসে।

এরপর সরেজমিনে গেল সপ্তাহে প্রিয় টাঙ্গাইল জেলা গ্রুপের সভাপতি ওই অটো-ভ্যান চালকের বাড়িতে মেয়েটিকে দেখতে যান। পরে পারিবারিক ও ওই মেয়েটির শারীরিক অসুস্থতা বিষয়টি গ্রুপের উপদেষ্টা ও সদস্যদের সাথে আলোচনা করে গেল গত শুক্রবার অসহায় মেয়েটির চিকিৎসার জন্য নগদ অর্থ প্রদান করেন গ্রুপের সভাপতি মো. সানোয়ার হোসেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- সাধারণ সম্পাদক মো. রবিউল ইসলাম রবিসহ গ্রুপের অন্যান্য মেম্বাররা।

প্রিয় টাঙ্গাইল জেলা গ্রুপ’র সভাপতি মো. সানোয়ার হোসেন জানান, সামাজিক গণমাধ্যম ফেসবুকে সাহায্যের পোস্টটি দেখা মাত্রই আমরা গ্রুপের সকলে উদ্যোগ নিয়েছিলাম ওই অটো-ভ্যান চালক ও দরিদ্র পিতার মেয়ে শান্তার পাশে দাঁড়ানোর। পরে গ্রুপের মেম্বার ও অন্যান্যদের সহযোগিতায় তা সফল হয়েছে। পাশে দাঁড়াতে পেরেছি শান্তার। শুধু তাই নয়, সামাজিক সেবামূলক কাজ অব্যাহত রয়েছে ও থাকবে।

এ বিষয়ে প্রিয় টাঙ্গাইল জেলা গ্রুপ’র উপদেষ্টা মীর শামীমুল আলম বলেন- ধনবাড়ী উপজেলার ওই শিশু শিক্ষার্থী শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছিলেন। তার চিকিৎসার জন্য সাহায্য চেয়ে স্থানীয় হারুন তালুকদার নামে এক ব্যক্তির ফেসবুক পোস্ট দেয়। সেটি আমাদের গ্রুপ সদস্যের নজরে আসে। পরে সকলের সহযোগিতায় চিকিৎসার জন্য নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন- প্রিয় টাঙ্গাইল জেলা গ্রুপ সামাজিক কাজে নিয়োজিত। অসহায় ও হতদরিদ্রদের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: