শিশু সায়মা ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় আসামির ফাঁসি

   
প্রকাশিত: ১১:৩২ পূর্বাহ্ণ, ৯ মার্চ ২০২০

রাজধানীর ওয়ারীতে সিলভারডেল স্কুলের ছাত্রী শিশু সামিয়া আফরিন সায়মাকে (৬) ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় আসামি হারুনুর রশিদের ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। সোমবার (৯ মার্চ) ঢাকার প্রথম নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক কাজী আব্দুল হান্নান চাঞ্চল্যকর ওই ঘটনার মামলার রায় ঘোষণা করেন।

দ্রুত সময়ের মধ্যে এই মামলাটির বিচার সম্পন্ন হলো। চলতি বছরের ২ জানুয়ারি সায়মা হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়, যা শেষ হয় ১৯ ফেব্রুয়ারি। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি আসামিদের আত্মপক্ষ সমর্থন শেষে যুক্তিতর্কের জন্য ৫ মার্চ দিন রাখেন আদালত। সেদিন রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায়ের জন্য ৯ মার্চ দিন ধার্য করা হয়। এই মামলার একমাত্র আসামি হারুনুর রশিদও সেদিন আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রাষ্ট্রপক্ষ আশা করছে মামলার একমাত্র আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি হবে। ওই আদালতের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর আব্দুল বারী বলেন, ‘সায়মা হত্যায় আসামির দায় আমরা সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছি। ধর্ষণের বিষয়ে ডিএনএ প্রতিবেদনেও প্রমাণিত হয়েছে। তাছাড়া আসামি ঘটনার সঙ্গে নিজের সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় আদালতের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। তাই এই আসামির মৃত্যুদণ্ড হবে বলে আমরা পুরোপুরি আশাবাদী।’ উল্লেখ্য, শিশু সামিয়াকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় তার বাবা আব্দুস সালাম গত ৬ জুলাই ওয়ারী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। ৭ জুলাই কুমিল্লার ডাবরডাঙা এলাকা থেকে হারুন অর রশিদকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরদিন আদালতে দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দেন হারুন।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: