শাহিনুর রহমান শাহিন

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

শুক্রবার জাবিতে প্রজাপতি মেলা

   
প্রকাশিত: ৪:৫২ অপরাহ্ণ, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৯

‘উড়লে আকাশে প্রজাপ্রতি, প্রকৃতি পায় নতুন গতি’ এই প্রতিপাদ্য স্লোগানকে সামনে রেখে প্রজাপতি সংরক্ষণ ও সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে প্রজাপ্রতি মেলা-২০১৯। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের কীটতত্ত্ব শাখার আয়োজনে ক্যাম্পাসে এই মেলা অনুষ্ঠিত হবে।

এদিন সকাল সাড়ে ৯ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়নের সামনে মেলার উদ্বোধন করবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম। এরপর এ্যাওয়ার্ড প্রদান, র‌্যালী, শিশু-কিশোরদের প্রজাপ্রতি বিষয়ক ছবি অঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগিতা, আলোকচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। দুপুরের দিকে জীবন্ত প্রজাপ্রতি প্রর্দশন, প্রজাপ্রতির আদলে ঘুড়ি উড্ডায়ন, প্রজাপ্রতি চেনা প্রতিযোগিতা, প্রজাপ্রতি বিষয়ক ডকুমেন্টারি প্রদর্শন এবং পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান।

এবারের মেলায়, প্রজাপ্রতি গবেষণায় বিশেষ অবদানের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. এম. এ. বাশার Butterfly Award-2019 -২০১৯ প্রদান করা হবে। এছাড়া বাটারফ্লাই ইয়াং ইনথুসিয়াস্ট এওয়ার্ড প্রদান করা হবে সবুজবাগ সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী অরুণাভ ব্রণো কে।

মেলার আহবায়ক ও প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক মনোয়ার হোসেন বলেন, ‘প্রতি বছরের ন্যায় এবারের মেলায়ও থাকছে বর্ণাঢ্য র‌্যালি, শিশু-কিশোরদের জন্য প্রজাপতি বিষয়ক ছবি আঁকা ও কুইজ প্রতিযোগিতা, প্রজাপতি বিষয়ক আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা ও প্রদর্শনী, জীবন্ত প্রজাপতি প্রদর্শন, প্রজাপতির আদলে ঘুড়ি ওড়ানো প্রতিযোগিতা, বারোয়ারি বিতর্ক প্রতিযোগিতা, প্রজাপতি বিষয়ক ডকুমেন্টারি প্রদর্শনী এবং পুরস্কার বিতরণ ও সমাপনী অনুষ্ঠান।’

প্রজাপ্রতি মেলা সম্পর্কে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্মতত্ত্ব বিভাগের স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থী মৃধা মো. বেলাল বলেন, প্রজাপ্রতি ভালো লাগে। একটি দুটি প্রজাপ্রতি উড়তে দেখলেই মন ভালো হয়ে যায় সেখানে হরেক রকমের প্রজাপ্রতি একসাথে দেখবো এটা ভাবতেই ভালো লাগছে।

উল্লেখ্য, ২০১০ সাল থেকে প্রজাপতি সংরক্ষণ ও প্রকৃতির ভারসাম্য বজায় রাখতে প্রজাপতির গুরুত্ব সম্পর্কে গণসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রজাপতি মেলার আয়োজন করে আসছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগ।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: