এম. সুরুজ্জামান

শেরপুর প্রতিনিধি

শেরপুরের পুলিশ সুপার করোনায় আক্রান্ত

   
প্রকাশিত: ৯:৫৭ অপরাহ্ণ, ৭ আগস্ট ২০২০

ছবি: সংগৃহিত

শেরপুরের করোনাযোদ্ধা মানবিক পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএম করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। শুক্রবার (৭ আগষ্ট) ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের করোনা ল্যাবে পরীক্ষায় তার দেহে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। বৃহস্পতিবার তিনি কিছুটা অসুস্থ্যবোধ করলে জেলা হাসপাতালের মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট (ল্যাব) এর সদস্যরা তার পরিবারের সকল সদস্যদের নমূনা সংগ্রহ করেন। তবে পরীক্ষায় তাঁর স্ত্রী ও দুই ছেলের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। শেরপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ একেএম আনোয়ারুর রউফ শুক্রবার রাতে এসপি কাজী আশরাফুল আজীমের করোনা সংক্রমণের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

শেরপুরে প্রথম সারির করোনাযোদ্ধা হিসেবে কাজী আশরাফুল আজীম ব্যাপক খ্যাতি অর্জন করেছেন। করোনা সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকে তিনি জেলায় অগ্রণী ভুমিকা রেখে চলেছেন। করোনা রোগীদের বাড়ীতে বাড়ীতে গিয়ে নিজ হাতে খাবার পৌঁছে দিয়েছেন। তাঁর নো মাস্ক নো মেডিসিন শ্লোগান জেলায় ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। শেরপুরে এখন মাস্ক ছাড়া কোন ওষুধ বিক্রি হয় না। পুলিশ সদস্যদের বেতনের টাকায় তিনি জেলা হাসপাতালে নমুনা বুথ স্থাপন করেন এবং জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে হাজার হাজার মানুষের হাতে করোনাকালীন সময়ে খাবার তুলে দিয়েছেন। “মানবিক পুলিশের চোখে জনতার আকাঙ্খা লেখা থাকে” এমন শ্লোগানে জেলায় যেখানেই করোনা রোগী সেখানেই হাজির হন এসপি কাজী আশরাফুল আজীম। আক্রান্তদের পৌঁছে দিয়েছেন হাসপাতালে পরিবারের হাতে তুলে দেন খাবার পাশাপাশি নিরাপত্তা। এছাড়াও তিনি শেরপুর জেলার সন্তানরা অন্য জেলায় পুলিশে চাকুরী করেন এমন সকল পরিবারের সদস্যদের খোঁজ খবর নিয়েছেন। এমনকি ওইসব পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার পাঠিয়েছেন।

শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন বলেন, স্যার বর্তমানে বাসাতেই আইসোলেশনে আছেন। গতকাল বৃহস্পতিবারের চেয়ে আজ শুক্রবার অনেকটা সুস্থ্য আছেন। তিনি পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীমের জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ৫ এপ্রিল শেরপুরে দুই নারীর দেহে প্রথম করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। শুক্রবার (৭ আগষ্ট) পর্যন্ত জেলায় ৩২৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। এরমধ্যে ২৯১ জন সুস্থ্য হয়ে বাড়ী ফিরে গেছেন। মারা গেছেন ৪ জন।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: