প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

এম. সুরুজ্জামান

শেরপুর প্রতিনিধি

শেরপুরে পরিবার কল্যাণ স্থায়ী পদ্ধতি গ্রহণে নারীদের রেকর্ড

   
প্রকাশিত: ১১:২৭ অপরাহ্ণ, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

শেরপুরে পরিবার-কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহে স্থায়ী পদ্ধতি গ্রহণে নারীদের রেকর্ড সংখ্যা অর্জিত হয়েছে। সদর উপজেলায় ৭ দিনে শতকরা ১৩৪ ভাগ নারী স্থায়ী পদ্ধতি গ্রহণ করেছে। এক সপ্তাহে ৩২ নারীকে স্থায়ী পদ্ধতি গ্রহণ করানোর জন্য লক্ষ্যমাত্রা নেয় পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ। সেখানে পদ্ধতি গ্রহণ করেন ৪৮ জন নারী। এছাড়া ই¤প্লান্ট নিয়েছেন ৩৯৭ জন মা। যেখানে লক্ষ্যমাত্রা ছিল সপ্তাহে ১৩০ জন। ২৭ জনের লক্ষমাত্রা ছাড়িয়ে আইইউডি গ্রহণ করেছেন ৬৮ জন নারী। গর্ভকালীণ সেবা নিয়েছেন ৬৫০ জনের মধ্যে ৪৪৮ জন। প্রসবকালীণ সেবা নিয়েছেন লক্ষ্যমাত্রার ৬০ জনের মধ্যে ৩৮ জন নারী এবং প্রসবোত্তর সেবা নিয়েছেন ১৫০ এর মধ্যে ১৭০ জন নারী।

রোববার (১৫ ডিসেম্বর) সদর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য দেন শেরপুর সদর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শারমীন রহমান অমি। ডা. শারমীন অমি বলেন, পরিবার- কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহে স্থায়ী পদ্ধতি ও ইমপ্লান্ট গ্রহণে শেরপুরে রেকর্ড অর্জিত হয়েছে। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর কোনদিন এমন লক্ষ্য অর্জণ সম্ভব হয়নি। তিনি বলেন, বিগত তিনমাসে গ্রাম পর্যায়ে মা কিশোরীদের নিয়ে পরিকল্পিত পরিবার, বাল্য বিয়ের কুফল ও পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতি নিয়ে জনসচেতনতামূলক সমাবেশ ও উঠান বৈঠক করার ফলে তাদের ভেতরে সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে পদ্ধতি নেওয়ার হার বেড়েছে। তবে প্রসবকালীণ সেবার ব্যাপারে মায়েদের আর সচেতন করা হবে বলে ওই কর্মকর্তা জানান। এসময় সদর উপজেলার ১৪ ইউনিয়নের পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারী, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

এফএএস/এসএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: