প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

ফরমান শেখ

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

‘সংসার খরচের টাকায় দরিদ্রদের পাশে মুন্নি’

   
প্রকাশিত: ৫:১৪ অপরাহ্ণ, ২৩ মে ২০২০

রোকেয়া সুলতানা মুন্নি। মধ্যবিত্ত পরিবারের একজন নারী। চলমান মহামারী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও মোকাবেলায় নিরলস ভাবে ব্যক্তি উদ্যোগে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন। এদিকে, এই করোনায় কর্মহীন অসহায়, হতদরিদ্র ও নিম্ন আয়ের মানুষগুলো হতাশায় জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। এমন পরিস্থিতিতে সরকারি-বেসরকারী, বিভিন্ন সামজিক সেবা সংস্থা ও বিত্তবানরা ব্যক্তি উদ্যোগেও সমাজের নিম্ন আয়ের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে।

এমনিভাবে সংসারের একমাত্র উপার্জন সক্ষম মুন্নির স্বামীর সহযোগিতায় সংসার ও সন্তানদের বাড়তি হাত খরচের জমানো টাকায় অসহায়দের জন্য ত্রাণ ও ঈদ সামগ্রী উপহার দিয়ে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি। এ পর্যন্ত প্রায় ২০০ পরিবারের মাঝে সহায়তা প্রদান করেছে বলে জানিয়েছে মুন্নি।

রোকেয়া সুলতানা মুন্নি টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গা পৌর এলাকার পাথাইলকান্দি গ্রামের মো. মঞ্জুরুল ইসলামের সহধর্মীনী। সে ইন্টার ন্যাশনাল মানবাধিকার কমিশনের জেলা শাখা’র সদস্য ও আওয়ামীলীগ যুব মহিলালীগের সাবেক জয়েন কনভেইনার।

রোকেয়া সুলতানা মুন্নির দেয়া ঈদ উপহার পেয়ে এলেঙ্গা পৌর এলাকার মোছা. রোজিনা বেগম, হাজেরা বেগম, রফিকুল ইসলাম, মো. সাইফুল, রোকেয়া বেগমসহ অনেকেই জানান, করোনা শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত কোন ত্রাণ বা ঈদ সামগ্রী পাইনি। অন্যদিকে, করোনায় হঠাৎ রাত ৮ টার দিকে দরজায় টোকার আওয়াজ পেয়ে দরজা খুলে দেখি ঈদ উপহার নিয়ে হাজির হয়েছে মুন্নি আপা। ঈদ উপহার পেয়ে আমরা খুব খুশি হয়েছি।

এ বিষয়ে রোকেয়া সুলতানা মুন্নি বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে সংসারের খরচ ও সন্তানদের হাত খরচের টাকা এবং নিজ অর্থায়নে আমার সাধ্যমতো কর্মহীন ও অসহায় মানুষদের মাঝে ত্রাণ ও ঈদ উপহার হাতে তুলে দিতে পেরে আমি খুব আনন্দিত। এ উপজেলা ও পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় ২’শ পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী পৌঁছাতে পেরেছি। মুন্নি আরো জানান, এই দুর্দিনে অসহায় মানুষদের পাশে থাকার জন্য বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আসতে অনুরোধ করছি।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: