প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

এম. সুরুজ্জামান

শেরপুর প্রতিনিধি

সম্ভ্রম বাঁচাতে অটোরিকশা থেকে ঝাঁপ দিলো কলেজ ছাত্রী!

   
প্রকাশিত: ১০:২০ পূর্বাহ্ণ, ১৯ অক্টোবর ২০২০

ছবি: প্রতীকী

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার আয়নাপুর গ্রামে একটি ব্যাটারীচালিত অটোরিকশায় এক কলেজ ছাত্রীকে হানিফ মিয়া (৩০) নামে এক ব্যাক্তি যৌন হয়রানি করেছে বলে অভিযোগ ওঠেছে। যৌন হয়রানীর সময় সম্ভ্রম বাঁচাতে ওই কিশোরী চলন্ত অটোরিকশা থেকে ঝাঁপ দিয়ে নিজেকে রক্ষা করেছে। অভিযোগ রয়েছে ওই অটোরিকশায় এক যাত্রী ও চালক থাকলেও তারা মেয়েটিকে রক্ষা করতে এগিয়ে আসেনি। রবিবার (১৮ অক্টোবর) এ ঘটনায় ঝিনাইগাতী থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার নাচুনমহরী গ্রামের ওই কিশোরী ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার একটি নার্সিং ইন্সটিটিউটের ছাত্রী। পুজার ছুটিতে বাড়িতে এসে সকালে পূজার কেনাকাটা করার জন্য সে আয়নাপুর গ্রাম থেকে ব্যাটারীচালিত অটোরিকশায় করে শেরপুর শহরের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। গাড়ীতে চালক ও যাত্রীও ছিল। পথে কারাগাঁও নামক স্থানে এলে আয়নাপুর গ্রামের আতাব উদ্দিনের ছেলে হানিফ মিয়া মেয়েটিকে যৌন হয়রানি শুরু করে। এতে হয়রানির মাত্রা বেড়ে গেলে মেয়েটিকে চিৎকার করতে থাকে। কিন্তু জায়গাটি ফাঁকা থাকায় কেউ এগিয়ে আসেনি। গাড়ী থামাতে বললেও চালক গাড়ী থামায়নি। গাড়ীতে থাকা যাত্রীও তাঁকে রক্ষায় এগিয়ে আসেনি। একপর্যায়ে নিজের সম্মান বাঁচাতে মেয়েটি চলন্ত অটোরিকশা থেকে লাফ দেয়। লাফ দিয়ে সে পায়ে আঘাত পায়। এসময় অটোরিকশার চালক দ্রুত গাড়ী নিয়ে সটকে পড়ে। মেয়েটি আঘাতের ব্যাথায় কাতরাতে থাকলে আশপাশের কয়েকজন তখন এগিয়ে আসেন। পরে পরিচিত এক ব্যাক্তি ওই ছাত্রীর বাড়িতে খবর দিলে তার স্বজনরা এসে তাঁকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঝিনাইগাতী থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ফায়েজুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় কলেজছাত্রী নিজেই বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত হানিফকে ধরতে পুলিশি অভিযান চলছে বলেও ওসি জানান।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: