প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

সিলেটে সাংবাদিকের সঙ্গে ‘দারাজ’র প্রতারণা, মামলায় জরিমানা

   
প্রকাশিত: ৮:৫৫ পূর্বাহ্ণ, ১৪ জানুয়ারি ২০২১

আবুল হোসেন, সিলেট থেকে: করোনার প্রথম ঢেউয়ের শুরুতে মাস্ক নিয়ে প্রতারণা করায় সাংবাদিকের দায়ের করা মামলায় দারাজ বিডি অনলাইনকে ৮ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সিলেট।

সিলেটের সাংবাদিক কাইয়ুম উল্লাসের দায়ের করা এই মামলায় দুইটি শুনানি শেষে জরিমানার ৮ হাজার টাকা আদায় করে ভোক্তা অধিকার। পরে আজ বুধবার (১৩ জানুয়ারি) দুপুরে আলমপুরস্থ ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ে সাংবাদিক কাইয়ুম উল্লাসকে জরিমানার ২৫% টাকা হস্তান্তর করেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সিলেট-এর সহকারী পরিচালক (মেট্রো) শ্যামল পুরকায়স্থ।

এ বিষয়ে সাংবাদিক কাইয়ুম উল্লাস বলেন,‘ করোনার শুরুতে মানুষের জন্য সবচেয়ে মূল্যবান জিনিস মাস্ক। দারাজ বিডি অনলাইনে আমি ৫টি কেএন৯৫ মাস্ক অর্ডার করেছিলাম। কিন্তু দারাজ আমাকে ৫টির বদলে ৪টি মাস্ক পাঠায়। আমি তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে সঠিক কোনো সুরাহা পাইনি। যে কারণে আমি দারাজের এই প্রতারণার বিরুদ্ধে মামলা করি। আমি মনে করি, ওই সময়ে দারাজ এভাবে লক্ষ্য মানুষের সঙ্গেই প্রতারণা করেছে। তাছাড়া অনলাইনে এ ধরনের প্রতারণা বেড়ে গেছে। সেদিকে প্রশাসনের সুদৃষ্টি দেওয়া প্রয়োজন। ’

জানতে চাইলে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সিলেট-এর সহকারী পরিচালক (মেট্রো) শ্যামল পুরকায়স্থ বলেন,‘ বাদি কাইয়ুম উল্লাস দারাজের বিরুদ্ধে ভোক্তা অধিকার আইনে একটি মামলা (নং ৯২) দায়ের করেছিলেন। শুনানিতে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪৫ ধারা মোতাবেক দারাজকে ৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।’

ঘটনা সম্পর্কে দারাজ বাংলাদেশ জানায়, ভোক্তাকে ৫ টি মাস্ক এর বদলে ৪টি মাস্ক পাঠানোর কারনে, তথা, যথাযথ পণ্য সরবরাহ না করার দায়ে, দারাজকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪৫ ধারা মোতাবেক জরিমানাটি করা হয়। উক্ত আইনের ৪৫ ধারা এবং জরিমানার আদেশে কোন প্রকার প্রতারণার উল্লেখ নেই। ৫টির বদলে ৪টি মাস্ক প্রেরণ করা নিতান্তই একটি মানবিক ভূল। এমতাবস্থায় উপরোক্ত বিষয়টিকে প্রতারণা বলে অবহিত করার কোন অবকাশ নেই। সেহেতু এই মানবিক ভুলটি কে প্রতারণা বলে চালানো সম্পূর্ণ ভাবেই বিভ্রান্তিমূলক ও হয়রানিমূলক।

এআইআর/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: