প্রচ্ছদ / স্পোর্টস / বিস্তারিত

সুযোগের অপেক্ষায় ছিলেন শুভাগত

   
প্রকাশিত: ১:২৩ অপরাহ্ণ, ১ ডিসেম্বর ২০২০

প্রথম তিন ম্যাচে সুযোগ মেলেনি। জেমকন খুলনার চতুর্থ ম্যাচে প্রথমবার মাঠে নামলেন শুভাগত হোম। বেক্সিমকো ঢাকার বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটিতে ব্যাটে-বলে আলো কেড়ে নায়ক বনে গেলেন ৩৪ বছর বয়সী অলরাউন্ডার।

ম্যাচসেরার পুরস্কার হাতে নিয়ে যিনি বললেন, একটা সুযোগের অপেক্ষাতেই ছিলেন তিনি।

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপটা ফেভারিটের তকমা নিয়ে শুরু করে খুলনা। তবে প্রথম ম্যাচে জিতলেও পরে টানা দুই ম্যাচে হেরে যায়। সোমবারের (৩০ নভেম্বর) ম্যাচটা তাই খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল তাদের জন্য। টানা দুই ম্যাচ হেরে আসর শুরু করা ঢাকাও আবার মুখিয়ে ছিল জয়ের জন্য। এমন ম্যাচে ঢাকার ব্যাটারদের বেঁধে রাখতে বড় ভূমিকা রেখেছেন শুভাগত।

১৪৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ঢাকা ১০৯ রানে গুটিয়ে যায়। শুভাগত ৩.২ ওভার বল করে ১৩ রান খরচায় নিয়েছেন ৩ উইকেট। আর আগে ব্যাটিংয়ে তার ছোট্ট ঝড়েরও অবদান অনেক। ৫ বলে ১ চার ও ১ ছক্কায় করেন ১৫ রান। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাকিব আল হাসানদের ছাপিয়ে তাই ম্যাচের নায়ক শুভাগত।

ম্যাচ শেষে বলছিলেন, ‘ভালো লাগছে। প্রথম ম্যাচটা জেতার পর ‍দুটি ম্যাচ জিততে পারিনি। আজকে চতুর্থ ম্যাচ। জয়টা আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। আর আমি খেলতে পারিনি (আগের তিন ম্যাচ), তবে আমার প্রস্তুতি নেওয়া ছিল যে যখনই সুযোগ পাব চেষ্টা করব ভালো খেলতে।’

জয়ে ফিরলেও খুলনার ব্যাটিংটা নিয়ে উদ্বেগ থেকেই যাচ্ছে। প্রথম ম্যাচে ৯ উইকেটে ১৫২ রান করতে পারলেও আর কোনো ম্যাচেই দেড়শ করতে পারেনি। দ্বিতীয় ম্যাচে ৬ উইকেটে ১৪৬ করার পর তৃতীয় ম্যাচে ৮৬ রানে অলআউট জয়ে যায়। এদিন ৮ উইকেটে ১৪৬ রান করতে পেরেছে, ফিফটি পাননি দলের কোনো ব্যাটার।

গুভাগত বললেন, ‘আমাদের ব্যাটসম্যানরা চেষ্টা করছে। প্র্যাকটিসেও চেষ্টা করছে, ম্যাচেও চেষ্টা করছে। আশা করছি সামনের ম্যাচ থেকে আরো ভালো করব।’

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: