প্রচ্ছদ / ক্যাম্পাস / বিস্তারিত

স্বাধীনতা যুদ্ধ শেষ হলেও মুক্তিযুদ্ধ শেষ হয়নি: আব্দুল্লাহ আবু সায়ীদ

   
প্রকাশিত: ৫:০৭ অপরাহ্ণ, ৫ ডিসেম্বর ২০১৯

কামরুল হাসান অভি, রাবি থেকে: প্রখ্যাত সাহিত্যিক, দার্শনিক, খ্যাতিমান অধ্যাপক, বিশিষ্ট চিন্তাবিদ, বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ আমাদের জাতির জীবনে খুব বড় একটি ঘটনা। সেই সাথে আমাদের মনে রাখতে হবে এই স্বাধীনতা যুদ্ধ চিরদিন চলে না। দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ একবারেই শেষ হয়েছে। এই স্বাধীনতা যুদ্ধ শেষ হলেও মুক্তিযুদ্ধ শেষ হয়নি। এই যুদ্ধ চলমান, চলতেই থাকবে।

বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ সিনেট ভবনে ‘বৈশ্বিক সহযোগিতায় দর্শন’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে দর্শন বিভাগ কর্তৃক আয়োজিত ‘বিশ্ব দর্শন দিবস’ উপলক্ষ্যে মূল বক্তার বক্তেব্যে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, স্বাধীনতাযুদ্ধ হয় কিছুকাল। সেই যুদ্ধ হয় বাইরের শক্তির সঙ্গে, আধিপত্যবাদী শক্তির সঙ্গে একটা সংকটকালীন সময়ে। তারপর শুরু হয় আসল যুদ্ধ। সেই যুদ্ধ শুরু হয় নিজের সঙ্গে। নিজের খারাপের সঙ্গে। সেই যুদ্ধে আমাদের আসল সংগ্রাম করে টিকে থাকতে হয়। সেইটাকে বলে মুক্তিযুদ্ধ। স্বাধীনতা যুদ্ধ শেষ হলে আমরা স্বাধীন হয়ে যাই, কোন জাতি স্বাধীন হয় কিন্তু মুক্তিযুদ্ধ কোনদিন শেষ হয় না। এই জাতি যতদিন আছে, পৃথিবী যতদিন আছে মুক্তিযুদ্ধ ততদিন চলবে।

এর আগে, দিবসটি উপলক্ষ্যে বিভাগের সভাপতি প্রফেসর শামীমা আক্তারের নেতৃত্বে বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি মমতাজউদ্দিন কলাভবনের সামনে থেকে ক্যাম্পাসের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ সিনেট ভবণে একটি আলোচনা সভায় মিলিত হয়। দর্শন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তাসনিম নাজিরা রিদার সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত কথা সাহিত্যিক, দর্শন বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষক প্রফেসর হাসান আজিজুল হক, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. আনন্দ কুমার সাহা ও প্রফেসর ড. চৌধুরী মো. জাকারিয়া। আলোচনা সভায় শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন দর্শন সমিতির কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. আক্তার আলী।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বিশিষ্ট পদার্থবিজ্ঞানী, বাংলাদেশে পদার্থ বিজ্ঞানের একমাত্র এমিরিটাস প্রফেসর ড. অরুণ কুমান বসাক, কলা অনুষদের ডীন প্রফেসর ফজলুল হক, দর্শন বিভাগের শিক্ষক প্রফেসর ড. আবু বকর, প্রফেসর ড. আসাদুজ্জামান, প্রফেসর ড. আরিফুল ইসলাম, প্রফেসর ড. মুতাসিম বিল্লাহ, প্রফেসর ড. মজিবুর রহমান, লতিফ হলে প্রাধ্যক্ষ সহযোগী অধ্যাপক ড. একরাম হোসেন, শহীদ হবিবুর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ ড. জাহিদুল ইসলাম, সহযোগী অধ্যাপক ড. রোকনুজ্জামান, সহযোগী অধ্যাপক ড. সন্ধা মল্লিক, সহকারী অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আল মামুন, আফরোজা সুলতানাসহ বিভাগের তিন শতাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

এসএ/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: