স্ব স্ব বিভাগে যুক্ত হবার দাবিতে বশেমুরবিপ্রবির আইসিটি ইনস্টিটিউটের মানববন্ধন

   
প্রকাশিত: ১:২৮ অপরাহ্ণ, ১৪ জানুয়ারি ২০২১

বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ (সিএসই) এবং ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের সাথে একীভূত হওয়ার দাবি নিয়ে মানববন্ধন পালন করছেন গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) আওতাধীন শেখ হাসিনা আইসিটি ইন্সটিটিউটের সিএসই এবং ইইই বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

আজ বৃহস্পতিবার (১৪জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে বেলা ১১টায় পালিত এ মানববন্ধনে অংশ নেয় প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী এক শিক্ষার্থী সেতু বলেন, “ সকল প্রকার সুযোগ-সুবিধা দেয়ার নিমিত্তে আমাদেরকে শেখ হাসিনা ইনস্টিটিউট অফ আইসিটি তে ভর্তি করানো হলেও সকল প্রকার সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত আমরা। তার উপর আমাদের ইনস্টিটিউট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। অর্থাৎ আমরাই একমাত্র ব্যাজ যে টি ইনস্টিটিউট থেকে পাস করে বের হবে যেটি বাংলাদেশের অন্য কোথাও এমন নজির নেই। সুতরাং আমাদের একটাই দাবি আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্ব স্ব বিভাগে সংযুক্ত হতে চাই।”

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী আরেক শিক্ষার্থী খলিলুর বলেন, “ আমরা ভর্তি হয়ে একই টিচারদের কোর্স করে পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হিসেবে আমাদের কোনো স্বীকারোক্তি নেই। এই দুই বিভাগের প্রায় ১০০ জন শিক্ষার্থীর ক্যারিয়ার নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় খেলা করতে পারে না। আমরা আর ভাসমান অবস্থায় থাকতে চাই না। হয় আমাদের ইনস্টিটিউটে পরবর্তী ব্যাচ ভর্তি করিয়ে পুনরায় চালু করতে হবে নতুবা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্ব স্ব বিভাগের সাথে সংযুক্ত করতে হবে।”

প্রসঙ্গত, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য খোন্দকার নাসিরউদ্দিনের অদূরদর্শীতায় মাদারিপুরের শিবচরে ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ থেকে অস্থায়ী ভাবে তৈরি হয় শেখ হাসিনা আইসিটি ইনিস্টিটিউট। যেখানে ইইই, ইটিই এবং সিএসই বিভাগে প্রায় ১০০ জন শিক্ষার্থীকে ভর্তি করানো হয়। এর মধ্যে ইটিই বিভাগের শিক্ষার্থীদেরকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ইটিই বিভাগের সাথে একীভূত করা হলেও অন্য দুটি বিভাগকে একীভূত করা হয়নি।

এআইআর/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: