হাতির ভয়ে গাছের উপরে বসবাস!

   
প্রকাশিত: ১১:৩৪ পূর্বাহ্ণ, ২৮ জানুয়ারি ২০২০

ভুটানের জঙ্গল থেকে নেমে আসা হাতির পাল গ্রামে আসলে হাতির ভয়ে পালিয়ে গাছে উঠতে হত। চোখের সামনে হাতে গড়া ঘর বাড়ী ভেঙে তছনছ করে দিত হাতির পাল। এভাবে অনেক বছর কাটানোর পরে আসামের বাক্সা জেলার মুসলপুরের বাসিন্দা বিজয় ব্রহ্মের বিরক্তি এসে যায়। তাই গাছের উপরেই বাস করা শুরু করেন তিনি। গত ১৩ বছর ধরে গাছের উপরে বাস করা বিজয়কে গ্রামের মানুষ এখন ‘বনমানুষ’ বলেই চেনে।

বিজয় জানান, মানুষের সংস্পর্শে আসতে পছন্দ করেন না তিনি। ছোটবেলায় অনাথ হওয়ার পরে তিনি অন্যের বাড়িতে কাজ করতেন। বনাঞ্চলের কাছে বাড়ি ছিল তার। একলা মানুষ, তাই ছোট্ট ঘরই ছিল শেষ সম্বল। কিন্তু সেটাও প্রায়ই ভেঙে দিত হাতিরা। বিজয় বলেন, ‘বারবার এই ঘটনার পরে ভাবলাম রাত নামলে যখন হাতির ভয়ে গাছেই উঠতে হয়, তখন মাটিতে ঘর বানায় লাভ কী? তাই কাঠ, তক্তা জোগাড় করে বনে গাছের উপরেই ছোট্ট ঘর তৈরি করে ফেলি।’ এরপর অন্যের বাড়ির কাজও ছেড়ে দেন। জঙ্গলে যা পাওয়া যায় তাই খেয়ে থাকতেন তিনি। বছয় ছয়েক বনাঞ্চলের ভিতরে থাকার পরে পাগলাদিয়া নদীর পারে খৈরানি পথারের কাছে নতুন একটি গাছে বাসা বেঁধেছেন তিনি। সেখানেও প্রায় সাত বছর হতে চলল।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: