হাতে চতুষ্কোণ চিহ্ন থাকলে যা ঘটবে আপনার জীবনে

   
প্রকাশিত: ২:৩৫ অপরাহ্ণ, ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

আমাদের জীবন নানা সমস্যায় ভরা। যেমন, গ্রহ শুভ ও অশুভ প্রভাব বিস্তার করে, তেমনই অশুভ বাস্তুর প্রভাবেও জীবনে উন্নতি ও বাধার সৃষ্টি হয়। নানা কারণে আমাদের মানসিক অশান্তি হতে পারে। অনেক সময় দেখা যায় গ্রহ দোষ না থাকলেও জীবনে বাধা বিপত্তি আসছে। জ্যোতিষশাস্ত্র মতে, হস্তরেখা বিচার করলে এ সম্পর্কে ধারণা পাওয়া সম্ভব। এখানে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে চতুষ্কোণ চিহ্ন।

এই চিহ্নটি যদি মঙ্গলের ক্ষেত্রে থাকে, তা হলে জাতক প্রচুর সম্পত্তির অধিকারী হয়ে থাকে। রবির স্থানে চতুষ্কোণ চিহ্নটি থাকলে যশ প্রাপ্তি ও ধন উপার্জনের পথের সমস্ত বিপদ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। এর ফলে জাতক কর্মক্ষেত্রে জয়ী হয়। এই চিহ্নটি রাহু ক্ষেত্রে থাকলে জাতক কর্তব্যপরায়ণ, ত্যাগী, পরোপকারী ও দানশীল প্রকৃতির হয়। কিন্তু অনেক সময় এরা বন্ধুদের দ্বারা প্রতারিত হয়ে থাকে।

শনির ক্ষেত্রে এই চিহ্নটির মাঝখানে যদি একটি ছোট্ট লাল বিন্দু বা দাগ থাকে, তবে জাতক আগুনের হাত থেকে রক্ষা পায়। এটি বুধের স্থানে থাকলে শিক্ষা, বাণিজ্য, ধর্ম ও অর্থ উন্নতির পথের সমস্ত বাধা থেকে মুক্ত থাকা যায়। বৃহস্পতির ক্ষেত্রে চতুষ্কোণ চিহ্ন থাকা জাতকের পক্ষে শুভ। এটি থাকলে জাতক আশা পুরনের সময় কোনও রকম বাধার সম্মুখীন হয় না।

শিরোরেখার উপর চতুষ্কোন চিহ্ন থাকলে মস্তকে আঘাত পাওয়া হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। আয়ুরেখার উপরে যদি চতুষ্কোন চিহ্নটি থাকে, তা হলে বিপদ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। তবে হৃদয়রেখার উপরে যদি চতুষ্কোণ চিহ্ন থাকে, তা হলে প্রেমে অসাফল্যই নির্দেশ দেয়। ভাগ্যরেখায় এই চিহ্ন থাকলে আর্থিক বিপদ বা ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

এসএ/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: