প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

মোঃ রাসেল ইসলাম

দিনাজপুর প্রতিনিধি

৩ বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা, ধর্ষকের চাচা গ্রেফতার

   
প্রকাশিত: ৯:২৮ অপরাহ্ণ, ১ ডিসেম্বর ২০১৯

ছবি: প্রতীকী

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে সাড়ে ৩ বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। এই ঘটনায় পুলিশ ১ জনকে গ্রেফতার করেছে। ধর্ষক আমজাদ হোসেন (২২) পলাকত রয়েছে। রবিবার (১ ডিসেম্বর) সকালে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহত শিশুর নাম আবিদা সুলতানা মীম। সে পাবীপুর উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের রঘুনাথপুর মধ্য ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের আরিফুল ইসলামের মেয়ে। তার বয়স সাড়ে ৩ বছর। শনিবার রাত ৯ টায় পার্বতীপুর উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের রঘুনাথপুর মধ্য ডাঙ্গাপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শিশুর মা নাসরিন জাহান সাথী জানায়, ৩০ নভেম্বর শনিবার বিকেলে আবিদা সুলতানা মীম বাড়ি থেকে খেলতে গিয়ে আর ফিরেনি। অনেক খোঁজাখুঁজির পর না পেয়ে এলাকায় মাইকিং করা হয়। রাত ৯ টার দিকে একই এলাকার রাশেদুল ইসলামের ছেলে জিহাদ (৫) এর কথা শুনে শিশু আবিদা সুলতানা মীম প্রতিবেশী আমিনুল ইসলামের বাড়ীতে রক্তাত্ত অবস্থায় পড়ে আছে বলে জানতে পারে তারা। এ সময় পুলিশ কে খবর দিলে পুলিশ ও এলাকাবাসী দরজা ভেঙ্গে টেবিলের নিচ থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে। দ্রুত তাকে পার্বতীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আলম মিয়া জানান, শিশুটি হাসাপাতালে নিয়ে আসার আগেই মৃত্যু করণ করেছে। এ ঘটনায় রাতেই নিহত শিশুর পিতা আরিফুল ইসলাম বাদী হয়ে ধর্ষণ ও হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে ধর্ষক আমজাদ হোসেনের চাচা শাহিনুর ইসলামকে গ্রেফতার করে। পার্বতীপুর মডেল থানার ওসি মোখলেছুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, শিশুটি খেলা করার সময় জানালা দিয়ে আমজাদ হোসেন চকলেট দেয়ার লোভ দেখিয়ে বাড়ীতে নিয়ে ধর্ষণের পর হত্যা করে। রাতেই শিশু পিতা আরিফুল ইসলাম বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন।

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: