এ আর রাশেদ

ইবি প্রতিনিধি

৪২ এ পা রাখল ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

   
প্রকাশিত: ৪:২৫ অপরাহ্ণ, ২২ নভেম্বর ২০২০

স্বাধীনতা পরবর্তী দেশের প্রথম সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি)। একুশ শতকের উপযোগী বিশ্বমানের গ্রাজুয়েট ও দক্ষ মানবসম্পদ তৈরীর ভীষণ নিয়ে এগিয়ে চলেছে এই বিশ্ববিদ্যালয়টি।

১৯৭৯ সালের ২২ নভেম্বর কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহের মধ্যবর্তী শান্তিডাঙ্গা ও দুলালপুরে প্রতিষ্ঠিত হয় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়। নানা প্রতিকূলতা ও চেলেঞ্জের মধ্যদিয়ে ৪২ এ পা রাখল দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সর্বোচ্চ এই বিদ্যাপিঠ।

আজ রোববার (২২ নভেম্বর) ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও ৪২তম বিশ্ববিদ্যালয় দিবস। এ বছর করোনা মহামারী কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দিবসটি উদযাপন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যরা।

করোনা সংক্রমণরোধে এবছর বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের অন্যতম কর্মসূচী আনন্দ শোভাযাত্রা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বর্জন করে কর্তৃপক্ষ। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ভবন চত্ত্বরে পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে শুরু হয় বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের কর্মসূচী।

জানা যায়, সকাল ১০টায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আব্দুস সালাম এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলন করেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান। এসময় রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আব্দুল লতিফ উপস্থিত ছিলেন।

পতাকা উত্তোলন শেষে শান্তির প্রতীক পায়রা ও বেলুন উড়ানো হয়। এরপর প্রশাসন ভবনের সভাকক্ষে ৪২তম বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের কেক কাটা হয়। কেক কাটা শেষে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষে থেকে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে অর্ধশতাধিক বৃক্ষ রোপণ করা হয়।

পরে দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদে বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নতি, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। এসময় দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন কেন্দ্রীয় মসজিদের পেশ ইমাম ড. আ শ ম শোয়াইব আহমেদ।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আব্দুস সালাম বলেন, ‘এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অতীত ঐতিহ্য শুধু সমুন্নত রাখাই নয়, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম ও মর্যাদা বৃদ্ধিতে কাজ করতে চাই।’ এসময় তিনি বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকল সদস্যকে ৪২তম ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের শুভেচ্ছা জানান।

 

এমআর/এনই

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: