প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে নৌকায় তুলে বিলে নিয়ে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ১

   
প্রকাশিত: ৭:৩৯ অপরাহ্ণ, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

ছবি: প্রতীকী

টাঙ্গাইলে ৬ষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে জোর করে নৌকায় তুলে বিয়ে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় একজনকে গ্রেফতারও করেছে পুলিশ। টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে এ ঘটনা ঘটে। সেই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পিছনে তিন বখাটের জড়িত থাকার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর আগে বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে নির্যাতিতার মা বাদী হয়ে দেলুয়ার থানায় বখাটে মাসুদকে প্রধান আসামি করে তিনজনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

নির্যাতিতাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই ঘটনায় অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে নির্যাতিতা ও স্বজনরা। নির্যাতিতা ও তার স্বজন সূত্রে জানা গেছে, একই এলাকার বখাটে যুবক মাসুদ দীর্ঘদিন ধরে বিরক্ত করে আসছিলো। সবশেষ গত শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় মেয়েটি নিজ বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে ছিলো। এ সময় মাসুদসহ মুখোশ পড়া তিন যুবক এসে তাকে জোর করে নৌকায় তুলে নিয়ে যায়। নির্যাতিতা ডাক চিৎকার করার চেষ্টা করলে বখাটে যুবকরা তার মুখ চেপে ধরে। পরে সিংহরাগী বিলে নিয়ে নৌকায় গণধর্ষণ করে অভিযুক্তরা। পাশাপাশি কাউকে কিছু জানালে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। পরে মেয়েটি অসুস্থ হয়ে পড়লে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে টাঙ্গাইল ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় আগামীকাল বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) একটি মেডিকেল টিম গঠন করা হবে বলে জানিয়েছেন টাঙ্গাইল ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক মো. নজরুল ইসলাম। অ্যাডিশনাল এসপি টাঙ্গাইল সদর ও দেলদুয়ার সার্কেল রেজাউর রহমান বলেন, গণধর্ষণের ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর আসামিদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

আরএএস/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: