প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

যেভাবে শ্রীদেবীকে বশে এনে বিয়ে করেছিলেন বিবাহিত বনি কাপুর

   
প্রকাশিত: ৮:১৩ পূর্বাহ্ণ, ১৩ নভেম্বর ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

শ্রীদেবী। বলিউডের প্রথম নারী সুপারস্টার বলা হয় তাকে। সত্তর দশকের শেষ দিকে তার সিনেমায় আগমন। তারপর কয়েক প্রজন্ম মাতিয়ে রেখেছিলেন অপূর্ব সৌন্দর্য আর বৈচিত্রময় অভিনয় দিয়ে। তার সঙ্গে প্রেম ও বিয়ে গুঞ্জন শোনা যায় আরেক সুপারস্টার মিঠুন চক্রবর্তীর।

তবে সেই মিঠুনকে সরিয়ে শ্রীদেবীর মনে জায়গা করে নিয়েছিলেন বলিউডের ডাকসাইটে প্রযোজক বনি কাপুর। করেছিলেন বিয়েও। মৃত্যুর আগ মুর্হর্ত পর্যন্ত শ্রীদেবী-বনি দম্পতি ছিলেন সুখী।

নিজের ৬৫তম জন্মদিনে বনি জানিয়েছেন কীভাবে তিনি শ্রীদেবীকে জয় করে নিয়েছিলেন। বিবাহিত হয়েও তিনি শ্রীদেবীকে প্রেমে মত্ত করেছিলেন। প্রথম দেখাতেই রীতিমতো শ্রীদেবীর প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছিলেন বনি কাপুর। নিজেই জানিয়েছেন প্রযোজক। অভিনেত্রীর থেকে নিজেকে সরিয়ে আনতে পারেননি তিনি। এমনকি সেকথা স্বীকার করেছিলেন নিজের তত্কালীন স্ত্রী মোনার কাছেও।

শ্রীদেবীর ‘ষোলা সাওয়ান’ দেখার পরই বনি কাপুর ঠিক করেন তিনি তার প্রোডাকশন হাউসে মিস্টার ইন্ডিয়া সিনেমায় তাকে কাস্টিং করবেন। অন্যদিকে, শ্রীদেবীর মা মেয়ের অভিনয় কেরিয়ারের যাবতীয় খুঁটিনাটির দেখাশোনা করতেন। তাই বনির প্রথম লক্ষ্য ছিল শ্রীদেবীর মা’কে ইমপ্রেস করা।

২০১৩তে ‘ইন্ডিয়া টুডে বিজনেস সাবমিটে’ গিয়ে বনি কাপুর খোলসা করেন, ‘সমসাময়িক অভিনেত্রীদের তুলনায় সবথেকে বেশি পারিশ্রমিক নিতেন শ্রীদেবী। আমি জানতাম সেই সময় শ্রী প্রায় ৮-৮.৫ লক্ষ টাকা পারিশ্রমিকে একটা সিনেমা করেছিল। আমি ওর মাকে জানিয়েছিলাম, না আমি ১১ লক্ষ টাকা পারিশ্রমিক দেব। তিনি যা চাইছেন আমি তাঁর থেকে বেশি পারিশ্রমিক দিতে রাজি আছি শুনে উনি ভেবেছিলাম তিনি ভেবেছিলেন আমি বম্বের একজন উন্মাদ প্রোডিউসার। যাক, এভাবেই আমি তার মায়ের কাছে সহজে পৌঁছাতে পেরেছিলাম।’

বনি আরও জানান, মিস্টার ইন্ডিয়া’র শুটিংয়ের সময় শ্রীদেবীর জন্য সেরা মেক-আপ রুম থেকে সেরা পোশাক সবকিছুর ব্যবস্থা করার চেষ্টা করেছিলেন। তিনি নিজেকে শ্রীদেবীর প্রেমে পড়া থেকে আটকাতে পারেননি। যদিও সেই সময় বনি কাপুর, মোনা সৌরির সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ ছিলেন। তাদের দুই সন্তান অর্জুন কাপুর ও অনুশুলা কাপুর।

বনি শ্রীদেবীর পিছু পিছু সুইজারল্যান্ড পর্যন্ত চলে গিয়েছিলেন ‘চাঁদনি’ সিনেমার শুটিং চলাকালীন। শ্রীদেবীও বনি কাপুরে অনুভূতি এবং আচরণ দেখে ধীরে ধীরে প্রতিক্রিয়া দিতে শুরু করেছিলেন। বনি জানান, ‘শ্রীদেবী বুঝতে পেরেছিল আমার অনুভূতিগুলো সত্যি ছিল। আমি পালানোর মতো মানুষ নই।’

অবশেষে ১৯৯৬ সালে বনি আর শ্রীদেবী সাত পাঁকে বাঁধা পড়েন। তাদের দুই কন্যা সন্তান-জাহ্নবী আর খুশি। ২০১৮ সালের ১৪ ফেব্রুয়রি দুবাইয়ের হোটেলে বাথটবে দুবাইয়ের এক পাঁচতারা হোটেলের বাথটবে ডুবে অস্বাভাবিক মৃত্যু হয় শ্রীদেবীর।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: