প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

পানিতে কাপড় ধরে টান দিতেই দেখেন ছেলের মরদেহ

   
প্রকাশিত: ১১:০৯ পূর্বাহ্ণ, ২৭ নভেম্বর ২০২০

নিখোঁজের একদিন পর শাহদাত হোসেন নামে এক শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার বিকেলে তার বাড়ির পুকুর থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এর আগে বুধবার সকাল থেকে সে নিখোঁজ ছিল। ঘটনাটি নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীর। মৃত শাহদাত সোনাইমুড়ী পৌরসভার কাঁঠালি গ্রামের কাদির মাস্টার বাড়ির মীর হোসেনের ছেলে এবং সোনাইমুড়ী সরকারি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শাহাদাতকে বুধবার সকাল ৯টার দিকে মুঠোফোনে কল দিয়ে ডেকে নেয় একই বাড়ির জামালের ছেলে সুমন। এরপর থেকে শাহাদতকে খোঁজাখুঁজি করে পাওয়া যায়নি। বৃহস্পতিবার বিকেলে ঘরের পেছনের পুকুরে ঝোপের মধ্যে শাহাদাতের পরিধানের কাপড় ভাসতে দেখে ছোট বোন মারিয়া তার মাকে জানায়। পরে তার মা কাপড় ধরে টান দিতেই ভেসে উঠে শাহাদাতের মরদেহ।

নিহতের মা রোকসানা বেগম জানান, সুমন প্রায় সময় বহিরাগত ছেলেদের নিয়ে তার ঘরে মাদকসেবন করে আসছে। মঙ্গলবার রাতেও সে কয়েকজন বন্ধুদের নিয়ে ঘরে মাদক পার্টি দেয়। সুমনের খারাপ অভ্যাস জেনে ফেলেছে বলে সুমন তার ছেলেকে মেরে ফেলেছে। ঘটনার পর থেকে সুমন পলাতক রয়েছে।

সোনাইমুড়ী থানার ওসি গিয়াস উদ্দিন জানান, মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হবে। এ ঘটনায় তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: